ঢাকা, বুধবার ২২, জানুয়ারি ২০২০ ২২:৫৮:২৪ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
ই-পাসপোর্ট ‘মুজিব বর্ষে’ উপহার: প্রধানমন্ত্রী নেপালে নারী-শিশুসহ ৮ ভারতীয় পর্যটকের মৃত্যু ই-পাসপোর্ট উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকদের প্রশিক্ষণে প্রয়োজনে বিদেশে পাঠান: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী ইতালি যাচ্ছেন ৩ ফেব্রুয়ারি

আজ বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:২৪ পিএম, ৩ ডিসেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

আজ ৩ ডিসেম্বর, বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস। 'প্রতিবন্ধীদের অংশগ্রহণ ও নেতৃত্বের বিকাশ : ২০৩০ উন্নয়ন কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্তিকরণ'-এই প্রতিপাদ্যে সারা বিশ্বে আজ উদ্যাপিত হচ্ছে দিবসটি। তবে বাংলাদেশে ২৮তম আন্তর্জাতিক এবং ২১তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস সরকারিভাবে আগামী বৃহস্পতিবার পালন করা হবে।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলাদা বাণী দিয়েছেন।

নেতৃত্বের বিকাশ বা অংশগ্রহণ অনেক দূরের বিষয়। বেঁচে থাকতেই রীতিমতো সংগ্রাম করতে হয় প্রতিবন্ধীদের। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কর্মক্ষেত্র, গণপরিবহন, রাস্তাঘাট, কোথাও প্রতিবন্ধীবান্ধব পরিবেশ নেই। কর্মসংস্থানের পথও বেশ কণ্টকাকীর্ণ। প্রতিবন্ধীদের নিয়ে সরকারের নেই দীর্ঘমেয়াদি কোনো পরিকল্পনা। সে জন্যই বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের প্রতিবন্ধীরা অনেক বেশি অবহেলিত। এমনটাই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশ্বজুড়ে প্রতিবন্ধী দিবসের অনুগামিতার পিছনে আছে এক ঘটনাবহুল জীবনস্মৃতি। ১৯৫৮ খ্রিস্টাব্দের মার্চ মাসে বেলজিয়ামে এক সাংঘাতিক খনি দুর্ঘটনায় বহু মানুষ মারা যান। আহত পাঁচ সহস্রাধিক ব্যক্তি চিরজীবনের মতো প্রতিবন্ধী হয়ে পড়েন। তাদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠে। তাদের প্রতি সহমর্মিতায় ও পরহিতপরায়ণতায় বেশ কিছু সামাজিক সংস্থা চিকিৎসা ও পুনর্বাসনের কাজে স্বতঃপ্রবৃত্ত ভাবে এগিয়ে আসে। এর ঠিক পরের বছর জুরিখে বিশ্বের বহু সংগঠন সম্মিলিত ভাবে আন্তর্দেশীয় স্তরে এক বিশাল সম্মেলন করেন। সেখান থেকেই প্রতিবন্ধকতা সম্পর্কে বিস্তারিত সব তথ্যের হদিশ মেলে। সেখানে সর্বসম্মতভাবে প্রতিবন্ধী কল্যাণে বেশকিছু প্রস্তাব ও কর্মসূচি গৃহীত হয়। খনি দুর্ঘটনায় আহত বিপন্ন প্রতিবন্ধীদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালন করতে আহ্বান জানানো হয়। সেই থেকেই কালক্রমে সারা পৃথিবীর প্রতিবন্ধী মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়ানোর দিন হয়ে উঠেছে।

দিবসটি উপলক্ষে উন্নয়নের মূলধারায় প্রতিবন্ধীদের একীভূতকরণ এবং ক্ষমতায়নের লক্ষ্য নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, সমাজসেবা অধিদপ্তর, জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন এবং সংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান দেশব্যাপী বিস্তারিত কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

-জেডসি