ঢাকা, সোমবার ২২, জুলাই ২০১৯ ১৮:৩২:৪৪ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
শিরোনাম
মিন্নির জবানবন্দি প্রত্যাহার ও চিকিৎসার আবেদন নামঞ্জুর বন্যার্তদের সহায়তা করতে ঢাবিতে কনসার্ট আজও ঢাবির ফটকে তালা, ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ মাগুরায় স্ত্রী-সন্তানকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

আমরাই পারি জোট এবং তারুণ্যের শক্তি

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:৫২ পিএম, ২২ জুন ২০১৯ শনিবার

আজকের তরুণ প্রজন্ম ভবিষ্যতের স্বপ্নদ্রষ্টা। বাংলাদেশ আজ সহস্রাব্দ উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা পেরিয়ে আরও বেশি অর্জনের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এই অর্জনে তরুণ সমাজের ভূমিকা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। আজকের পৃথিবীতে তরুণ সমাজ নানা বিষয়ে অস্থির সময় পার করছে; তারপরও সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসঙ্গতির বিরুদ্ধে তরুণরা প্রতিবাদে গর্জে উঠে, রুখে দাঁড়ায়। তাদের প্রতিবাদের ভাষা পৌঁছে যায় সবখানে, এর প্রভাব পড়ে ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্রে। এটাই তারুণ্যের শক্তি। 

সেই ভাবনার থেকে 'আমরাই পারি জোট' দীর্ঘদিন ধরে  তরুণ সমাজকে সঙ্গে নিয়ে সংগঠনের নানা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। বর্তমানে বাংলাদেশে সংগঠনটির দশ লাখ চেঞ্জমেকার রয়েছে। এর মধ্যে তরুণ সমাজের প্রতিনিধি প্রায় পাঁচ লাখ। তাদের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে । 

আমরাই পারি জোট নারী ও কন্যাশিশুর প্রতি সব ধরনের নির্যাতন প্রতিরোধে বদ্ধ পরিকর। আমরাই পারি বিশ্বাস করে সমাজ থেকে নারী নির্যাতন বিলুপ্ত করতে হলে সবার আগে ব্যক্তি পর্যায়ে সচেতনতা প্রয়োজন। সমাজকে বদলে দেবার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে আমরাই পারি জোটে’র যাত্রা শুরু। ব্যক্তি পর্যায়ে নিজের মানসিকতা ও দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের মাধ্যমে যারা সমাজের পরিবর্তন আনতে চায় তারাই আমরাই পারি জোটের চেঞ্জমেকার। 

এ প্রসঙ্গে আমরাই পারি জোটের জাতীয় সমন্বয়কারী জিনাত আরা হক বলেন, যে পরিবর্তনে উদ্বুদ্ধ করবে, সেই চেঞ্জমেকার। আমরাই পারি জোটের সাথে চেঞ্জমেকার হিসাবে সংযুক্ত আছেন বিভিন্ন জেলার নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, আইনজীবী, উন্নয়নকর্মী, সাংবাদিক এবং বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। 

সম্প্রতি রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আমরাই পারি জোটে’র স্টুডেন্ট চেঞ্জমেকার সংখ্যা সাতশো  ছাড়িয়ে  গেছে। স্থানীয় পর্যায়ে আমরাই পারি জোটের সুস্পষ্ট কর্মপরিকল্পনা ও এর সঠিক বাস্তবায়নের ফলাফল হিসেবে এই ব্যাপক সাফল্য অর্জন সম্ভব হয়েছে। ২০১৮ সাল থেকে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল এর সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে পরিচালিত গার্লস অ্যাডভোকেসি অ্যালায়েন্স প্রকল্পের মাধ্যমে জোট রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের চেঞ্জমেকারদের সাথে নিয়ে কাজ করছে। 
রংপুর জেলায় আমরাই পারি জোটের বেগম রোকেয়াবিশ্ববিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট চেঞ্জমেকার  ফোরামটি নারীর প্রতি সহিংসতা  রোধে বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। 

গত ফেব্রুয়ারি মাসে জোট  আয়োজিত স্টুডেন্ট চেঞ্জমেকার সম্মেলনে তারা অংশগ্রহণ করে এবং তাদের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন। 

এছাড়াও এ বছর  ৮ মার্চ  আন্তর্জাতিক নারীদিবস উপলক্ষে তারা বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে, যার মূল বিষয় ছিল ‘নারী নির্যাতন  রোধ ও সবক্ষেত্রে নারীর সমান অধিকার অর্জন’। 

এই স্টুডেন্ট চেঞ্জমেকার  ফোরাম বিভিন্ন সময় বাল্যবিয়ে প্রতিহত করতে এবং নারীর প্রতিসহিংসতা রোধে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। সমাজে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে তারা একটি নাটিকা নির্মাণ করে এবং বিভিন্ন স্কুল-কলেজে তা একাধিকবার মঞ্চায়ন করে যাচ্ছে। এর পাশাপাশি বিষয়ভিত্তিক আলোচনা সভা, নারী নির্যাতনবিরোধী প্রতিবাদ সভা, মানববন্ধনসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে এই শিক্ষার্থীরা। 

সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন অর্জনে এই তরুণদের ভ’মিকা আরো বাড়াতে সুদূরপ্রসারী ও ধারাবাহিক কর্মপরিকল্পনা করেছে আমরাই পারি জোট। এই কর্মসূচিতে বাংলাদেশের আরো অনেক তরুণের সক্রিয় অংশগ্রহণ থাকবে বলে আশা করেন জোটের প্রোগ্রাম ম্যানেজার জামিলুর রহমান।