ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২১, জানুয়ারি ২০২১ ৯:৫৫:২৯ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রে করোনা: সাড়ে ৮ মাসের মধ্যে দেশে সর্বনিম্ন মৃত্যু ৩ কোটি ডোজ টিকা সংগ্রহের কার্যক্রম চলমান: প্রধানমন্ত্রী বৃদ্ধাকে নগ্ন করে নির্যাতন, গৃহকর্মীকে ধরতে অভিযান চলছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাচ্ছেন শ্রীনগরের ৭০ পরিবার

ইন্দিরা দেবী চৌধুরানীঃ লেখক অনুবাদক ও সংগীত শিল্পী

আলীম আল রশিদ | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:৫৬ পিএম, ২৯ ডিসেম্বর ২০২০ মঙ্গলবার

ইন্দিরা দেবী চৌধুরানী

ইন্দিরা দেবী চৌধুরানী

ইন্দিরা দেবী চৌধুরাণী একজন বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী, লেখক ও অনুবাদক। ঠাকুরবাড়ির মেয়েদের মধ্যে তিনিই প্রথম বি.এ পাশ করেন। ইন্দিরা দেবী’র সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি একজন অনুবাদক।
ইন্দিরা দেবী চৌধুরাণী সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জ্ঞানদানন্দিনী দেবীর মেয়ে। পারিবারিক পরিচয়ে সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর ছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অগ্রজ (মেঝ ভাই)।
১৮৭৩ সালের  ২৯ ডিসেম্বর ইন্দিরা দেবীর জন্ম তৎকালীন বোম্বাই প্রদেশের কারোয়ারে বর্তমান কর্ণাটক রাজ্যে। পৈতৃক নিবাস কলকাতা জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি।
তার মা জ্ঞানদানন্দিনীও ছিলেন একজন ব্যতিক্রমী, বিদুষী ও প্রগতিশীল নারী। একমাত্র দাদা সুরেন্দ্রনাথ ঠাকুর তার চেয়ে দেড় বছরের বড়। ইন্দিরা দেবী ১৮৯৯ সালে নিজের পছন্দের পাত্র প্রমথ চৌধুরীর সঙ্গে পরিণয়সূত্রে আবদ্ধ হন।
১৮৮১ সালে প্রথম দিকে সিমলার অকল্যান্ড হাউজে এবং পরে কলকাতার লরেটো হাউজে পড়াশোনা করেন। ১৮৮৭ সালে তিনি এন্ট্রান্স ও পরে এফএ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। ১৮৯২ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএ পরীক্ষায় মেয়েদের মধ্যে প্রথম স্থান লাভ করে তিনি ‘পদ্মাবতী’ স্বর্ণপদকে ভূষিত হন।
বাদ্রিদাস মুকুলের কাছে উচ্চাঙ্গসঙ্গীত শিক্ষা গ্রহণ করেন। কিছুদিন সেতার বাজানও শিখেছিলেন। অনুবাদক হিসেবে ইন্দিরা দেবী অল্পবয়সেই খ্যাতি অর্জন করেন।
কৈশোরে তিনি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পরিচালিত এবং মা জ্ঞানদানন্দিনী সম্পাদিত বালক পত্রিকায় রাস্কিনের রচনার বাংলা অনুবাদ করতেন।
পরে ফরাসি শিখে তিনি রেনে গ্রুসের ভারতবর্ষ, পিয়ের লোতির কমল কুমারিকাশ্রম এবং মাদাম লেভির ভারতভ্রমণ কাহিনী অনুবাদ করেন।
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বহু কবিতা, গল্প ও প্রবন্ধসহ জাপানযাত্রীর ডায়রী-র ইংরেজি অনুবাদও তিনি প্রকাশ করেন।
পরবর্তীকালে বামাবোধিনী, বঙ্গলক্ষ্মী, সাধনা, পরিচয়, সবুজপত্র প্রভৃতি পত্রিকায় সঙ্গীত ও সাহিত্যবিষয়ে তার অনেক মৌলিক রচনা প্রকাশিত হয়। বঙ্গনারীর শুভাশুভ বিষয়ে তার মতামত নারীর উক্তি নামক প্রবন্ধটি ছাপানো হয।
১৯৪৪ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় তাকে ‘ভুবনমোহিনী’ স্বর্ণপদক, ১৯৫৭ সালে বিশ্বভারতী ‘দেশিকোত্তম’ এবং ডি-লিট ডিগ্রী লাভ করেন এবং ১৯৫৯ সালে রবীন্দ্রভারতী সমিতি প্রথমবারের মতো ‘রবীন্দ্রপুরস্কার’-এ ভূষিত করে।
ইন্দিরা দেবী ১৯৬০ সালের ১২ আগস্ট  মারা যান।
আজ বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী, লেখক ও অনুবাদক ইন্দিরা দেবী চৌধুরানীর জন্মদিন। আজকে গভীর শ্রদ্ধা জানাই।