ঢাকা, সোমবার ২০, জানুয়ারি ২০২০ ১:৫১:৫২ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
ফরিদপুরে অগ্নিকাণ্ডে মা-মেয়ের মৃত্যু ভারতের নাগরিকত্ব আইনের প্রয়োজন ছিল না: প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার জামিন বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ ধর্ষণ প্রতিরোধক ডিভাইস সরবরাহের নির্দেশনা চেয়ে রিট স্ত্রী-শাশুড়িসহ ৪ জনকে হত্যার পর আত্মহত্যা

একটি ছবি বদলে দিয়েছে মোথি’র জীবন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১০:২৭ পিএম, ১১ নভেম্বর ২০১৯ সোমবার

এই ছবি প্রকাশের পরই মোথিকে স্কুলে ভর্তি করানো হয়।

এই ছবি প্রকাশের পরই মোথিকে স্কুলে ভর্তি করানো হয়।

সোশ্যাল মিডিয়া মানুষের জীবন কী ভাবে বদলে দিতে পারে তা মোথি দিব্যার কাহিনি শুনলেই বোঝা যায়। কিছু দিন আগে ভারতের তেলেগু‘র একটি সংবাদপত্রে মোথি নামে ওই শিশুর একটি ছবি প্রকাশিত হয়।

ছবিতে দেখা যায়, একটি স্কুলের ক্লাসে উঁকি মারছে সে। ছবিটি পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। আর তার পরেই ক্লাস রুমে পৌঁছে যায় মোথি, সৌজন্যে ওই ছবি।

হায়দারাবাদে গুডিমালকাপুরের দেবল ঝাম সিংহ গভর্নমেন্ট হাইস্কুল। এই স্কুলের কাছেই বাড়ি মোথি দিব্যার। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, স্কুলের একটি ক্লাসের বাইরে খালি পাত্র হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে সে। ভিতরে তার বয়সী ছেলেমেয়েরা পড়াশোনা করছে। মোথি অপেক্ষা করছে একটু খাবারের। কখন ক্লাসের ঘণ্টা পড়বে, আর ছাত্রছাত্রীদের মিড-ডে মিলের ভাগ পাবে সে-ও।

তেলুগু সংবাদপত্রে মোথির ছবিটি ছাপা হয়েছিল ‘আকালি চুপু’ ক্যাপশন দিয়ে। তেলুগু ওই দুই শব্দের বাংলা ‘ক্ষুধার্থ চাহনি’। সংবাদপত্রের সেই ছবি পরে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ছবিটি নজরে আসে এমভি ফাউন্ডেশনের ন্যাশনাল কনভেনর বেঙ্কট রেড্ডির। এমভি ফাউন্ডেশন শিশুকন্যাদের জন্য কাজ করা একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। বেঙ্কট রেড্ডি ছবিটি ফেসবুকে পোস্ট করে লেখেন, ‘কেন এই শিশুটি তার শিক্ষার অধিকার, খাদ্যের অধিকার পাবে না... এটা লজ্জার’।

এরপর তার সংগঠনের সদস্যরা মোথির সঙ্গে যোগাযোগ করে। তাকে ওই স্কুলেই ভর্তি করা হয়। মোথি এখন ওই স্কুলেরই ছাত্রী। ফলে পড়াশোনার পাশাপাশি সে এখন একবেলা মিড-ডে মিলের খাবারও পাবে। সেই ছবিও পোস্ট করা হয়েছে ফেসবুকে।

(আনন্দবাজার পত্রিকা অবলম্বনে)