ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৯, অক্টোবর ২০২০ ১১:০১:১৯ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অল্প সুদে ঋণ দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর কোভিড-১৯: দেশে আরও ২৩ মৃত্যু, শনাক্ত ১৪৯৩ পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে ‘করোনা’ ও ‘ধর্ষণ’ ইউরোপে আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে প্রাণঘাতি করোনা: হু ইয়েমেনে অপুষ্টিতে লাখো শিশু মৃত্যুঝুঁকিতে: জাতিসংঘ

এমসি কলেজে ধর্ষণ: ৫ দিনের রিমান্ডে সাইফুর ও অর্জুন

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৩:২৪ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ সোমবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সিলেটে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে নববধূকে গণধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমান ও অর্জুন লস্করের পাঁচদিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এদিন বেলা ১১টা থেকে আদালত এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে দুপুর পৌনে ১২টায় সিলেট মহানগর মুখ্য হাকিম দ্বিতীয় আদালতের বিচারক সাইফুর রহমান তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে পুলিশি পাহারার প্রিজন ভ্যানে করে বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে সাইফুর রহমান ও অর্জুনকে আদালতে নিয়ে আসা হয়।

গতকাল রবিবার সকাল আটটার দিকে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা নোয়ারাই খেয়াঘাট থেকে সাইফুর রহমানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আর অর্জুনকে গ্রেফতার করা হয় হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার মনতলা সীমান্ত এলাকা থেকে।

সাইফুর অস্ত্র মামলারও আসামি। ঘটনার দিন রাত ৩টার দিকে এমসি কলেজের হোস্টেলে অভিযান চালিয়ে সাইফুর রহমানের কক্ষ থেকে একটি পাইপগান, চারটি রামদা ও একটি চাকু, দুটি লোহার পাইপ, প্লাসসহ বিভিন্ন জিনিস জব্দ করে। ছাত্রলীগের এই নেতার বিরুদ্ধে হোস্টেল সুপারের বাংলো দখলের অভিযোগও রয়েছে।

গত শুক্রবার এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হন এক গৃহবধূ। রাত সাড়ে আটটার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই গৃহবধূকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে আটকে রাখে দুজন। এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদীহয়ে শাহপরান থানায় মামলা করেছেন। মামলায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরো তিন জনকে আসামি করা হয়।

এ ঘটনায় ইতোমধ্যে মামলার এজাহারভুক্ত চার আসামিসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এখনও অধরা আসামিমাহফুজুর রহমান মাসুম (২৫)। তারেকুল ইসলাম তারেক (২৮)। তাদের গ্রেফতার করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করছে। একই সঙ্গে তারা যেণো দেশ ছেড়ে পালাতে না পারে সে কারণে সীমান্ত এলাকায় কঠোর নজরদারি রাখা হয়েছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী আশা করছে খুব শিগগিনই আটক করতে সমর্থ হবে।

-জেডসি