ঢাকা, শনিবার ২৭, ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১০:৪৩:৪৯ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
করোনার টিকা পেতে নিবন্ধন করেছে ৪১ লাখ ৮ হাজার প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন কাল বিকেলে দেশে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১১ মৃত্যু চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৭০ জনসন অ্যান্ড জনসনের ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

করোনা মোকাবিলায় ১০ নির্বাহী আদেশে বাইডেনের সই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:২৫ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০২১ শুক্রবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড ১৯) পরিস্থিতি মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ১০টি পৃথক নির্বাহী আদেশে সই করেছেন। ফেডারেল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট বিভাগকে এক মাসের মধ্যে ১০০টি কমিউনিটি টিকাকেন্দ্র স্থাপনের নির্দেশ দেয়ার কথা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

এছাড়া বাইডেন প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১০০ দিনের মধ্যে ১০ কোটি মানুষকে টিকার আওতায় নিয়ে আসার পরিকল্পনার কথা জানানো হয়েছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের ডাইনিং রুমে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে বক্তব্য দেন জো বাইডেন। সেখানেই তিনি এসব কথা জানান।

এসময় প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, কোভিড-১৯-এর সংক্রমণে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের চেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়ে গেছে । আজকের নাজুক অবস্থার সৃষ্টি যেমন একদিনে হয়নি, তেমনি এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্যও সময় লাগবে। তিনি জনগণকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ ঘটবেই। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আরও বলেছেন, ‘আমরা এই মহামারিকে পরাজিত করব।’

জো বাইডেন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় তাঁর প্রশাসনের ১০০ পৃষ্ঠার কৌশলপত্র অবমুক্ত করেন। মাস্ক ব্যবহারের বাধ্যবাধকতা বৃদ্ধি, টিকা সরবরাহ ত্বরান্বিত করা, টেস্টিং বাড়ানো ও অন্যান্য জনস্বাস্থ্য বিষয়কে এই কৌশলপত্রে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে।

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল স্থানীয় ফার্মেসিগুলোর মাধ্যমে সাধারণ জনগণকে সহজে টিকা দেয়ার ব্যবস্থা করেছে। টিকা দিতে ফেডারেল জনস্বাস্থ্য বিভাগে বিপুল স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেয়ার কথাও জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। যুক্তরাষ্ট্রে বাইরের কোনো দেশ থেকে প্রবেশের জন্য করোনা নেগেটিভ সনদসহ অন্যান্য সতর্কতামূলক পদক্ষেপের নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

জো বাইডেন বলেন, যুদ্ধকালীন জরুরি অবস্থা বিবেচনা করে চলমান মহামারি পরিস্থিতি মোকাবিলা করা হবে।

করোনা মহামারি মোকাবিলায় শীর্ষ সংক্রামক রোগবিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসিকে প্রশাসনে যুক্ত করেছেন বাইডেন।

এদিকে হোয়াইট হাউসের প্রেসরুমে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে ফাউসি বলেন, ইতিহাসের এক অন্ধকার সময় অতিক্রম করছে আমেরিকা। তবে করোনার সংক্রমণ ধীরে ধীরে কমে আসছে। ট্রাম্প প্রশাসনে কাজ করার সময় নানা বিব্রতকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন। ফাউসি বলেন, নিজেকে অনেকটাই মুক্ত মনে হচ্ছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় বিজ্ঞানভিত্তিক আলাপ করা যাচ্ছে।

এসময় ফাউসি জানান, গ্রীষ্মকালের মধ্যে সত্তর থেকে আশি শতাংশ আমেরিকার মানুষকে টিকা কর্মসূচির আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হবে। এমনটা হলে এ বছরের শেষ দিকে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে।

গত বছরের মার্চ মাস থেকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণে যুক্তরাষ্ট্রে চার লাখ ছয় হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। সংক্রমিত হয়েছেন আড়াই কোটির বেশি।

-জেডসি