ঢাকা, সোমবার ২৭, জানুয়ারি ২০২০ ৭:১০:৫৪ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
চীনে করোনাভাইরাস: ভ্রমণ স্থগিতের কথা ভাবছে সরকার গর্ভের শিশুর লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে রিট শেখ হাসিনায় আস্থা রাখে ৮৬ শতাংশ নাগরিক বিসিএসে বয়সসীমা ৩২ করার দাবিতে রিট যোগাযোগের উন্নয়নে রেল ব্যবস্থা অপরিহার্য: প্রধানমন্ত্রী

কোমল পানীয়তে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি: গবেষণা

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:৫৯ পিএম, ৬ এপ্রিল ২০১৯ শনিবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

চিনি বা কৃত্রিম মিষ্টি দিয়ে তৈরি কোমল পানীয় আগাম মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়িয়ে দিচ্ছে। কারণ এই ধরনের পানীয় পানে হৃদরোগ এবং কয়েক ধরণের ক্যান্সারের সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভাড বিশ্ববিদ্যালয়ের টি.এইচ. চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথ পরিচালিত ওই গবেষণাটি গতমাসে প্রকাশিত হয়।

জানা গেছে, গত ৩০ বছর ধরে সারা বিশ্বের ৩৭ হাজার পুরুষ এবং ৮০ হাজার নারীর ওপর এই গবেষণাটি পরিচালিত হয়।গবেষণায় দেখা গেছে, চিনি দিয়ে তৈরি বিভিন্ন পানীয় পানের কারণে অন্য কোন কারণ ছাড়াই তাদের আগাম মৃত্যুর ঝুঁকি বেড়ে গেছে।

গবেষণা বলছে, এই জাতীয় পানীয় যত বেশি খাওয়া হবে, মৃত্যু ঝুঁকিও ততই বেড়ে যাবে।

গবেষক দলের একজন ও প্রধান লেখক ভাসান্তি মালিক বলেন, ‘গবেষণায় দেখা গেছে, যারা মাসে একবার চিনি দিয়ে তৈরি পানীয় পান করেন, তাদের তুলনায় যারা চারবার পর্যন্ত পান করেন, তাদের আগাম মৃত্যুর ঝুঁকি ১ শতাংশ বেড়ে যায়। এছাড়া যারা সপ্তাহে ২ থেকে ছয়বার পান করে, তাদের মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ে ৬ শতাংশ, আর যারা প্রতিদিন এক থেকে দুইবার চিনির পানীয় খায়, তাদের মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ে ১৪ শতাংশ’।

তিনি আরও বলেন, ‘যারা প্রতিদিন দুইবারের বেশি এরকম চিনি দিয়ে তৈরি পানীয় পান করে, তাদের আগাম মৃত্যুর সম্ভাবনা বাড়ে ২১ শতাংশ’।

জানা গেছে, অনেক দেশে চিনি দিয়ে তৈরি কোমল পানীয়ের ওপর অতিরিক্ত কর আরোপ করা হয়েছে এটাকে নিরুৎসাহিত করতে।

বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইউরোমনিটর বলছে, বিশ্বে এখন কোমল পানীয় পানের হার বছরে গড়ে ৯১ দশমিক ৯ লিটার। অথচ পাঁচ বছর আগেও এই হার ছিল গড়ে ৮৪ দশমিক ১ লিটার।

হার্ভাডের গবেষকরা বলছেন, ডায়েট কোমল পানীয় খাওয়া কিছুটা কম ঝুঁকিপূর্ণ, তবে কোমল পানীয়ের বাজারে তাদের অংশ খুবই কম।

বিশ্বে এখন কোমল পানীয় পানের দিক থেকে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে চীন।বছরে দেশটির একেকজন নাগরিক এ জাতীয় পানীয় গ্রহণ করে ৪১০ দশমিক ৭ লিটার। এরপরেই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ,স্পেন সৌদি আরব, আর্জেন্টিনার অবস্থান। সূত্র : বিবিসি

-জেডসি