ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১২, ডিসেম্বর ২০১৯ ১৭:২৮:২০ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
বড় দিন ও থার্টি ফার্স্ট উদযাপনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিদের্শনা ব্রিটেনে সাধারণ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু দুর্নীতির জন্য সব অর্জন ম্লান হয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী এই রায় নজিরবিহীন: খালেদা জিয়ার আইনজীবী খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ

জলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০১:১০ পিএম, ১১ নভেম্বর ২০১৯ সোমবার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় আমরা নিজস্ব অর্থায়নের ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করেছি। সেই অর্থ দিয়েই দুর্যোগ মোকাবিলায় যা যা করণীয় তা করা হচ্ছে।

আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলের শান্তি নিরাপত্তায় কৌশলগত নীতি প্রণয়ন নিয়ে আন্তর্জাতিক সেমিনার ‘ঢাকা গ্লোবাল ডায়ালগ ২০১৯’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।

এই সেমিনারে প্রায় ৫০টি দেশের মন্ত্রী, রাজনীতিবিদ, কূটনীতিক, আমলা, একাডেমিশিয়ান, বেসরকারি খাতের প্রতিনিধিরাসহ প্রায় ২০০ জন অংশগ্রহণ করছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনে আসলে বাংলাদেশের কোনো ভূমিকা নেই। আমাদের প্রতিটি প্রজেক্ট যখন আমরা নেই তখন আমরা পরিবেশ রক্ষার দিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দিয়ে থাকি। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় হলো জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে আমরা অন্যতম। আমরা সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে যাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন,  ভারত মহাসাগরের তীরে ৪০টি স্বল্পোন্নত দেশে এবং বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৩৫ শতাংশের বাস। আর বঙ্গোসাগরে তীরে এশিয়ার ছয়টি দেশের অবস্থান। সাগর ও মহাসাগর দ্বারা এসব মানুষের অথনৈতিক জীবন নানাভাবে প্রভাবতি হয়। এই দেশগুলোর অথনৈতিক নিরাপত্তার জন্য সাগার ও মহাসাগরে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে হবে।  

তিনি বলেন, বর্তমানে বিশ্বের সব সাগর ও মহাসাগর নানা সমস্যায় আক্রান্ত। যা পৃথিবীর সামগ্রিক পরিবেশকে হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছে। কারোর একার পক্ষে এই সমস্যা সমাধান করা সম্ভব নয়। সবার অংশগ্রহণের মাধ্যমে এটা সমাধান করা যাবে।

তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশ এমনিতেই প্রাকৃতিক দুর্যোগের দেশ। দুদিন আগেই আপনারা দেখেছেন যে বিরাট এক ঘূর্ণিঝড় আমাদের আক্রমণ করতে এসেছিল। এরকম প্রতিনিয়ত আমাদের মোকাবিলা করতে হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘তবে দুযোর্গ মোকাবিলায় আমরা যথেষ্ট সচেতন এবং দুর্যোগকালীন সময়ে কী কী করতে হবে সে বিষয়ে আমরা যথাযথ পদক্ষেপ নিয়ে থাকি। প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষায় আমরা বিভিন্ন কর্মসূচিও বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা শুধু দেশের নয় বরং পুরো অঞ্চলের জন্য হুমকি।‘ তবে এই হুমকি অনুধাবন করে তা দ্রুত সমাধানের জন্য বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘প্রতিবেশি থাকলে সমস্যা হবেই, তবে সমস্যা সমাধানে আলোচনায় বিশ্বাসী বাংলাদেশ।’

এ সময় দারিদ্র্যকে সবচেয়ে বড় শক্র হিসেবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি মনে করে আমাদের এই অঞ্চলে বড় শক্র দারিদ্র্য। ’

তবে সবাই মিলে একযোগে কাজ করলে দারিদ্র্যকে জয় করার সম্ভব বলেও মনে করেন তিনি।

সরকারপ্রধান বলেন, ‘আমাদের এক হয়ে কাজ করা দরকার। যেন আমাদের এই অঞ্চলগুলোর মানুষের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য, তাদের অর্থনৈতিক উন্নতি, তাদের অগ্রগতি আমরা নিশ্চিত করতে পারি।’