ঢাকা, রবিবার ২৩, ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৭:০৬:০৪ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
খালেদার স্বাস্থ্যের সর্বশেষ তথ্য জানতে চায় হাইকোর্ট দুই বিশ্ববিদ্যালয়কে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা করোনায় ৬ জনের মৃত্যু; আতঙ্কে ইরান ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ১৬ মার্চ কালিয়াকৈরের মৌচাকে বাস উল্টে মা-মেয়ের মৃত্যু করোনার আক্রমনে মৃতের সংখ্যা ২৪৫৮

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ, আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৮:৫২ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২০ বৃহস্পতিবার

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ, আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তি

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ, আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তি

রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার মো. মজনু (৩০) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন। জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার আদালত মজনুর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষ হওয়ার একদিন আগেই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আবু সিদ্দিক আদালতে আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন করেন। সেই আবেদন মঞ্জুরের পর আজ ঢাকা মহানগর হাকিম তোফাজ্জেল হোসেন ওই স্বীকারোক্তি রেকর্ড করেন এবং পরে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

আসামিকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি ধর্ষণের কথা স্বীকার করেন। মজনু আদালতকে জানান, তিনি একজন অভ্যাসগতভাবে ধর্ষণকারী। আসামি ভ্রাম্যমাণ অবস্থায় থাকেন। তার স্থায়ী কোনো বসবাসের জায়গা নেই এবং ভ্রাম্যমাণ নারীদের সম্মতি ব্যতীত এই অনৈতিক কাজ করে আসছেন তিনি।

এর আগে গত ৮ জানুয়ারি মজনু গ্রেপ্তার হন। তারও আগে গত ৬ জানুয়ারি ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে ক্যান্টনমেন্ট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। সেদিন সন্ধ্যা ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে তার বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার উদ্দেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে রওনা হন ওই ছাত্রী। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে বাসটি ক্যান্টনমেন্ট থানাধীন কুর্মিটোলা বাস স্ট্যান্ডে থামে। ওই ছাত্রী বাস থেকে নেমে ফুটপাট দিয়ে ৪০ থেকে ৫০ গজ শেওড়ার দিকে হেঁটে আর্মি গলফক্লাব মাঠ সংলগ্ন স্থানে পৌঁছালে পেছন থেকে গ্রেপ্তার ব্যক্তি তাকে ধরে ফুটপাতের পাশে মাটিতে ফেলে দেন এবং তার গলা চেপে ধরেন। ভুক্তভোগী ছাত্রী এ সময় অজ্ঞান হয়ে পড়লে আসামি তাকে ধর্ষণ করেন।