ঢাকা, শুক্রবার ২৮, ফেব্রুয়ারি ২০২০ ৬:০৭:৫৯ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
এবার করোনায় আক্রান্ত ইরানের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবার পাকিস্তানে করোনাভাইরাসের হানা খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ মশা যেন ভোট খেয়ে না ফেলে, মেয়রদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী করোনা আতঙ্কে সৌদি ভ্রমণ ভিসা স্থগিত

ধর্ষকের বিচার হোক দ্রুত আইনের মাধ্যমে

তাসকিনা ইয়াসমিন | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৪:২৭ পিএম, ৮ জানুয়ারি ২০২০ বুধবার

ধর্ষকের বিচার হোক দ্রুত আইনের মাধ্যমে

ধর্ষকের বিচার হোক দ্রুত আইনের মাধ্যমে

রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় এখন এর বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে দেশজুড়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। এর প্রেক্ষিতে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে ধর্ষকের শাস্তি আসলে কি হওয়া উচিত। ফেসবুকে একদল প্রতিবাদী ধর্ষককে ধরে ক্রসফায়ারে দেবার কথা বলছেন। আবার অনেকে ধর্ষকের বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালে করার দাবী করছেন।  তবে, বিশ্লেষকেরা বলছেন, ধর্ষণের শাস্তি দেয়া হোক দ্রুত আইনের মাধ্যমে।

এ প্রসঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের গবেষক আফসান চৌধুরী বলেন, মানুষ এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। এ কারণেই সে বলছে, ধর্ষককে মেরে ফেল। কারণ সে ধরেই নিচ্ছে, হয় সে নিজে বাঁচবে, না হয় অন্যজন বাঁচবে। এর বাইরে মানুষ আর কিছু ভাবতে পারছে না।

এসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অব বাংলাদেশ (এএলআরডি)'র নির্বাহী পরিচালক শামসুল হুদা বলেন, ধর্ষণের শাস্তির বিচার হয় নারী ও শিশু নির্যাতন বিশেষ ট্রাইব্যুনালে। এই ধরণের অপরাধের শাস্তি বেশ কঠোর। অপরাধ প্রমাণিত হলে কমপক্ষে ১০ বছর কারাদণ্ড, কিম্বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে। এক্ষেত্রে আইনের মাধ্যমেই শাস্তি হওয়া দরকার।

লেখক তাহমিনা কোরাইশী বলেন, ক্রসফায়ারে যদি একজন ধর্ষকে দিয়ে দেয়া হয় তাহলে তো সে মারা গেল। তার তো শাস্তি পাওয়া হলো না। আমি চাই তার শাস্তি হোক। তাকে জেল হাজতে রাখা হোক। এতে জীবদ্দশায় সে দেখে যেতে পারবে যে, সে কি ভুল করেছে।

বিষয়টি নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক গীতিআরা নাসরীন তার ফেসবুক পেজ এ লিখেছেন ধর্ষকের বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালে করতে হবে। বিচারহীনতা উৎসাহিত করবেন না।