ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮, জুলাই ২০১৯ ২:২০:২৬ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
শিরোনাম
রিফাত হত্যায় মিন্নি জড়িত: তদন্তকারী কর্মকর্তা আগামীতে দেশে বিদ্যুৎচালিত ট্রেন চলবে: প্রধানমন্ত্রী পাসের হারে এগিয়ে মেয়েরা মিন্নি পাঁচ দিনের রিমান্ডে এইচএসসির ফলাফলে সন্তুষ্ট প্রধানমন্ত্রী

নারী সাংবাদিককে চুম্বন করে নির্বাসিত বক্সার

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৮:৪০ পিএম, ৩০ মার্চ ২০১৯ শনিবার

লাইভ ইন্টারভিউয়ের সময় নারী সাংবাদিককে আচমকাই চুম্বন করে নির্বাসিত হলেন বুলগেরিয়ান হেভিওয়েট বক্সার কুবরত পুলেভ৷ তাকে নির্বাসনের কথা জানান ক্যালিফোর্নিয়ার বক্সিং চিফ৷ শুধু তাই নয়, ক্যালেফোর্নিয়া স্ট্রেট অ্যাথলেটিক কমিশনের সামনে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷

ক্যালিফোর্নিয়া স্ট্রেট অ্যাথলেটিক কমিশন অর্থাৎ সিএসএসি-র তরফ  থেকে জানানো হয়, ‘ক্যালিফোর্নিয়ার হয়ে ফাইটে লড়াইয়ের আগে কুবরত পুলেভকে কমিশনের সামনে হাজির হতে হবে৷’

রোমানিয়ার বোগদান দিনুর বিরুদ্ধে বাউট জিতে উঠে ভেগাস স্পোর্টস ডেলি’র নারী সাংবাদিক জেনিফার রাভালো, যিনি সাংবাদিকমহলে জেনি সুশি নামে পরিচিত, তাকে সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন পুলেভ৷ সাক্ষাৎকারের শেষে ক্যামেরার ফ্রেম থেকে বেরিয়া যাওয়ার ঠিক আগের মুহূর্তে ওই নারী সাংবাদিককে জোরপূর্বক চুম্বন করেন বুলগেরিয়ান বক্সার৷

বিষয়টি জেনিফার হাসি মুখে মানিয়ে নিলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিওটি ভাইরাল হতে বিশেষ সময় নেয়নি৷ জোর করে চুমু দেওয়ার জন্য তারকা বক্সারের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলছেন অনেকেই৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়৷ বিতর্কের মুখে পুলেভ নিজের কৃতকর্মের একটা সাফাই দেন সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ সরাসরি ক্ষমা না-চাইলেও টুইটারে অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে ঘটনার পিছনে যে অন্য গল্প লুকিয়ে রয়েছে, তা জানান দেওয়ার চেষ্টা করেন বুলগেরিয়ান বক্সার৷

নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে পুলেভ লেখেন, ‘আপনারা হয়ত একটি ভিডিও ক্লিপে দেখেছেন যে শনিবার রাতে আমি বাউট জিতে সাক্ষাৎকার দেওয়ার পর এক নারী সাংবাদিককে চুমু দিয়েছি৷ ওই রিপোর্টার জেনি আসলে আমার একজন বন্ধু৷ সাক্ষাৎকার দেওয়ার পর আমি এতটাই উচ্ছ্বসিত ছিলাম যে, ওকে চুমু দিয়ে বসি৷ সেই রাতেই আমার অন্যান্য বন্ধুদের সঙ্গে পোস্ট ম্যাচ সেলিব্রেশনেও হাজির ছিল জেনি৷ ভিডিওতে দেখেছেন নিশ্চই, চুমু দেওয়ার পরে আমাদের উভয়ের মুখেই হাসি ছিল এবং একে অপরকে ধন্যবাদও জানিয়েছি৷ এর বাইরে অন্য কোনও উদ্দেশ্য ছিল না৷’

উত্তরে রাভালো জানান, ‘পার্টিতে অনান্য বক্সারদের ইন্টারভিউ করার জন্য আমাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল৷ ভোরের দিকে পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন পুলেভ৷ ওখানেই ও আমাকে ইন্টারভিউ থেকে কিসিং দৃশ্য বাদ দিতে বলেন৷ কিন্তু আমি সেটা করিনি৷ কারণ আমি চাই লোকেরা দেখুক ও আমার সঙ্গে কী করেছে৷ এর জন্য ওই দায়ি৷’

পুরো ঘটনার কথা উল্লেখ করে এক বিবৃতি দিয়ে রাভালো আরও জানান, ‘ইন্টারভিউ চলার সময়ই পুলেভ জড়িয়ে ধরে আমার লিপে কিস করেন৷ আমি এতটাই মর্মাহত হয়েছিলাম যে, কী করব ভেবে পাইনি৷ এর পর পাশে টেবলে গিয়ে আমি যখন আমার ব্যাকপ্যাক খুলে রাখছিলাম, তখনই ও আমার পিছনে গিয়ে দু-হাত দিয়ে উরু টিপে ধরে৷ তার পর কোনও কিছু না-বলে হাসতে হাসতে বেড়িয়ে যায়৷ এর পরই আমি পুলেভকে তার অপেশাদার কাজকর্মের জন্য শিক্ষা দেওয়ার জন্য তৎপর হই৷ যাতে ও ভবিষ্যতে কোনও নারী সাংবাদিকের সঙ্গে যেন এমন ঘটনা না-ঘটে৷’