ঢাকা, বুধবার ২৭, অক্টোবর ২০২১ ১৫:২২:৫০ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
কাবুলে নারীদের বিক্ষোভ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে সদা প্রস্তুত বাসেত মজুমদারের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণের মামলার রায় ফের পেছালো টাঙ্গাইলে কিশোরীর গলা কাটা লাশ উদ্ধার বিশ্বে করোনায় মৃত্যু সাড়ে ৭ হাজার খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি দেশে করোনায় শনাক্তের হার ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ

নেট দুনিয়ায় ভাইরাল ‘মানিকে মাগে হিতে’

বিনোদন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৬:২১ পিএম, ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ বুধবার

ইওহানি দিলোকা ডি’সিলভা

ইওহানি দিলোকা ডি’সিলভা

কথায় আছে, মিউজিক হ্যাজ নো ল্যাঙ্গুয়েজ৷ তাই তো গানের লিরিক্সের মানে কিছু না বুঝতেও পারলে ঘন্টার পর ঘন্টা এখন এই গানটা শুনছেন সকলে৷ যেন নেশার মতো সবাইকে পেয়ে বসেছে মানিকে মাগে হিতে৷ তাইতো সিংহলী ভাষার এই গান ভারতেও এত ফেমাস৷ কিন্ত এমন কী আছে এই গানে? রহস্যটা কী?

আসলে মিস্ট্রিটা যিনি গাইছেন তার সুরেলা মিষ্টি কন্ঠে রয়েছে৷ কে এই গায়িকা? কী তার পরিচয়? জানেন? জানতে চাইলে ফেসবুক, ইনস্টা, ইউটিউব যে কোনও সোশাল মিডিয়া স্ক্রোল করলেই বারবার আপনার কানে আসবে এই গানটাই ইউটিউবে তো প্রতি সেকেন্ডে গানের ভিউজ বেড়ে চলেছে। ৮ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে৷ আর এই ক্রেডিটটা বেশির ভাগটাই পাওনা মানিকে মাগে হিতের গায়িকা শ্রীলঙ্কার পপ তারকা ইওহানি দিলোকা ডি’সিলভার৷ ইওহানির কন্ঠে যেন এক অদ্ভুদ মিষ্টতা রয়েছে৷ তাকে শ্রীলঙ্কার র‍্যাপ প্রিনসেস বলা হয়৷

সাধারণত র‌্যাপাররা এতটা সুরেলা কণ্ঠের অধিকারি হন না, কিন্তু ইওহানি সেই জায়গায় একেবারে অন্যরকম৷ তার গান নেশায় বুঁদ করে দেয় সকলকে৷ মাত্র আটাশ বছর বয়স এই শিল্পীর৷ ১৯৯৩ সালে কলোম্বোয় জন্ম ইওহানি-র পড়াশোনার জন্য ২০১০-২০১২ পর্যন্ত লন্ডনে কাটিয়েছেন মায়ের সঙ্গেই গানের চর্চা শুরু ইওহানির সংগীতের প্রতি ভালোবাসা তাকে ফিরিয়ে এনেছিল শ্রীলঙ্কায় প্রথম গানেই তাক লাগিয়েছিলেন ইওহানি তার সঙ্গে মঞ্চ ভাগ করে নিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রথম সারির সমস্ত শিল্পীরাও একের পর এক কনসার্ট এবং সিঙ্গল দিয়ে নিজের জায়গা করে তৈরি করে নেন তিনি মানিকে মাগে হিতে এতটা জনপ্রিয় হবে তিনিও ভাবতে পারেননি

দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে এখন আন্তর্জাতিক স্তরে পপুলার ইওহানি৷ গানটি ভারতের ৫০টি ভাইরাল গানের মধ্যে শীর্ষ ৬ নম্বরে উঠে গেছে, অবশ্য ১ নম্বরে উঠে গেলেও অবাক হব না। সেই খবর পেয়ে ইয়োহানি তার ফেসবুকে লেখেন, তিনি আনন্দে অভিভূত। তার গানের ভাষা না বুঝেও তা সবাই বারবার শুনছে, গুনগুন করছে৷ শিল্পীর কাছে এর থেকে বড় পাওনা আর কী বা হতে পারে৷