ঢাকা, বুধবার ২৬, ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:২০:৩৮ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
কাল ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পাচ্ছেন ১৭২ শিক্ষার্থী প্রাথমিক সমাপনীতে বৃত্তি পেল সাড়ে ৮২ হাজার শিক্ষার্থী সোনাদিয়ায় পর্যটনকে গুরুত্ব দিতে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ কুষ্টিয়ায় মাকে হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড দেশে স্বামীর হাতে ২৫ শতাংশ নারী নির্যাতিত দেশের সব মসজিদে নারীদের নামাজের ব্যবস্থা চেয়ে রিট

বইমেলায় আজ মানুষের ঢল

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৬:৫৮ পিএম, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শুক্রবার

ছবি : সংগ্রহ করা

ছবি : সংগ্রহ করা

আজ শুক্রবার বইমেলায় মানুষের ঢল। বইপ্রেমী মানুষের বাঁধভাঙা জোয়ারে গোটা মেলা প্রাঙ্গণ রূপ নিয়েছে জনসমুদ্রে। পা ফেলার সামান্য জায়গা নেই যেন। লাখো মানুষের ভিড় ঠেকেছে একদিকে শাহবাগ অন্যদিকে দোয়েল চত্বরে গিয়ে।

ছুটির দিন শুক্রবার হওয়ায় বইমেলায় শিশুপ্রহর শুরু হয় সকাল ১১টায়। শিশু-অভিভাবকরা সকালে এলেও অনেকেই রয়ে গেছেন বিকেলেও। 

শিশুপ্রহরের কারণেই দুপুরের পর থেকে মেলার চিত্র পাল্টে যায়। দীর্ঘ থেকে দীর্ঘ  হত থাকে সারি। পায়ের তালে পা। মেলার গেট পেরুতেই ঘণ্টা পার। তবুও কোনো বিরক্তি নেই, নেই কোনো ক্লান্তির ছাপ। সবার মধ্যেই উৎসবের আমেজ। 

মেলায় সন্ধ্যার পর তিল ধরার ঠাঁই মেলেনি। উপচে পড়া ভিড়ে হাঁটারও জো নেই। প্রচণ্ড ভিড়ে অনেকেই নাজেহাল। 

রাজধানীর মালিবাগ থেকে মেলায় আসা ফরহানা রহমান বললেন, চাকরি কনি তাই আজই হাতে সময়আছে। সপ্তাহের অন্যদিনগুলোতে ছুটি তো পাব না।  ঘুরে ঘুরে বই দেখেছি। কয়েকটি বই কিনেছি।’

মেলা প্রসঙ্গে কথা হয় ছড়াসাহিত্যিক ফারুক নওয়াজের সঙ্গে। তিনি বলেন, আসলে ছুটির দিন বলেই আগতদের ভিড় আজ বেশি। আর আজ আমি এসেছি এই ভিড় দেখতে। আজ মেলায় লোক বেশি তাই বিক্রিও বেশি। 

তিনি বলেন, লোকের সমাগম দেখে বেশ আনন্দ লাগছে। এখনো আমাদের দেশের মানুষ বই পড়ে ভাবতেই ভাল হয়ে যাচ্ছে।

 
কথা হয়, বলাকা প্রকাশনের প্রকাশক শরিফা বুলবুলের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘মেলা প্রকৃত ছন্দে ফিরে এসেছে। আজ প্রচুর ভিড়। শুক্রবার এমন ভিড় হবে তা ধারণা করেছিলাম। বইও বিক্রি হচ্ছে বেশ।’

জানা গেছে, অমর একুশে গ্রন্থমেলায় এবার প্রথম ছয়দিনে বাংলা একাডেমির নিজস্ব স্টলে ২৫ লাখ সাড়ে আট হাজার টাকার বই বিক্রি হয়েছে। গত মেলায় ছয়দিনে একাডেমির বিক্রি ছিল ১৮ লাখ তিন হাজার টাকা। এবারের ছয়দিনে বিক্রি ৭ লাখ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। 

বাংলা একাডেমীর পরিচালক, ড. জালাল আহমদ বলেন, একাডেমির ছয়দিনের বই বিক্রির হিসাব আমরা দিয়েছি। অন্যান্য স্টল ও প্যাভিলিয়নগুলোতেও বিক্রির অবস্থা মেলা কমিটির পক্ষ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। মেলা শেষে সব স্টলের বিক্রির তথ্য মিডিয়াকে জানানো হবে। 

তিনি বলেন, এ পর্যন্ত মেলার সার্বিক অবস্থা ইতিবাচক। মেলায় প্রকাশিত প্রতিদিনের নতুন বই একাডেমিতে জমা দিচ্ছেন প্রকাশরা। প্রতিদিনই বই প্রকাশের সংখ্যা বাড়ছে। বিক্রিও বৃদ্ধি পাচ্ছে।