ঢাকা, সোমবার ১৯, আগস্ট ২০১৯ ১৬:২০:১৮ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
শিরোনাম
হাইকোর্টে আবারও মিন্নির জামিন আবেদন স্পিকারদের সম্মেলনে যাচ্ছেন শিরীন শারমিন বেনাপোলে আন্তর্জাতিক নারী হুন্ডি ব্যবসায়ী আটক বন্যার পরই উন্নয়ন প্রকল্প শুরু করুন: প্রধানমন্ত্রী দেশে আনা হয়েছে কলকাতায় দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাংলাদেশির লাশ ঈদযাত্রায় সড়ক, রেল ও নৌপথে দুর্ঘটনায় নিহত ২৫৩

বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের নীলনকশাকারীদের মুখোশ উন্মোচন করা প্রয়োজন

বাসস | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৪:৫২ পিএম, ১ আগস্ট ২০১৯ বৃহস্পতিবার

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, কমিশন গঠন করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকান্ডের নীলনকশার সাথে জড়িতদের মুখোশ উন্মোচন করা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, ‘১৫ আগস্টের হত্যাকান্ডের সাথে জিয়াউর রহমানসহ যারা এই নীল নকশার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, একটি কমিশন গঠন করে তাদের মুখোশ জাতির সামনে উন্মোচন করা প্রয়োজন। এটিই আজকে জনতার দাবি, জনগণের দাবি।’

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ক্লিনিক ভবনের সামনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে তথ্য অধিদফতর আয়োজিত ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দুর্লভ আলোকচিত্র প্রদর্শনী’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন
তথ্যমন্ত্রী।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, দেশের মানুষ মনে করে যারা বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ড সামনে থেকে সংঘটিত করেছিলেন শুধু তাদের বিচারের মাধ্যমেই ন্যায় প্রতিষ্ঠা পুরোপুরি সম্ভবপর নয়। ন্যায় প্রতিষ্ঠা করতে হলে যারা এই হত্যাকান্ডের পেছনে নীল নকশা প্রণয়ন করেছে তাদেরও বিচার করতে হবে।’

বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের নীলনকশা প্রণয়নকারী হিসেবে জিয়াউর রহমানের নাম উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের ক্ষমতায় বসানো, ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ পাস করাই প্রমাণ করে যে, সবকিছুর সঙ্গে জিয়াউর রহমান জড়িত ছিলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যকান্ডের সঙ্গে জিয়াউর রহমান যুক্ত ছিলেন, সেটি বেগম খালেদা জিয়া জানতেন কি-না, আমি জানি না। কিন্তু খালেদা জিয়া ও বিএনপির কর্মকান্ড প্রমাণ করে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডের পরিপ্রেক্ষিতে যে রাজনৈতিক অপশক্তির অভ্যুদয় হয়েছে তার পুরোধা হচ্ছে বিএনপি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে রূপান্তিত করার স্বপ্ন দেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে স্বাধীনতা পরবর্তী সাড়ে তিন বছরের মাথায় হত্যা করার কারণে তিনি সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করে যেতে পারেননি। এখন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের পথে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলছে।

তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে রাজনৈতিক অপশক্তি বাংলাদেশের অগ্রগতিকে পেছন থেকে টেনে ধরার চেষ্টা করছে। এই অপশক্তি হচ্ছে জঙ্গিগোষ্ঠীর পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামায়াত। তারাই এখন গুজব ছড়াচ্ছে, তারাই সমাজে অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

পরে মন্ত্রী ডিজিটাল ডিসপ্লেতে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন এবং বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আলোকচিত্র ও সেই সময়ের পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত বঙ্গবন্ধুর আলোকচিত্রসমূহ ঘুরে দেখেন।

অনুষ্ঠানে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, তথ্যসচিব আবদুল মালেক, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকারসহ মন্ত্রণালয় ও অধীন দফতরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।