ঢাকা, সোমবার ১৬, সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২:২৪:৪৬ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
দুর্নীতির অভিযোগে জাবি উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি ভিকারুননিসার নতুন অধ্যক্ষ ফওজিয়া পুলিশকে সততার সঙ্গে কাজ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ডিপ্লোম্যাট ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে শেখ হাসিনা

বাবার কাজকে অনুসরণ করে এগিয়ে যাব : এলমা সিদ্দিকী

সালেহীন বাবু | উইমেননিউজ২৪.কম

আপডেট: ১১:০২ পিএম, ২৪ জুলাই ২০১৮ মঙ্গলবার

প্রয়াত বংশীবাদক ও সঙ্গীত শিল্পী বারী সিদ্দিকীর সুযোগ্য উত্তরসূরি এলমা সিদ্দিকী। ব্যতিক্রমী গায়কীর মাধ্যমে ইতিমধ্যে তিনি সবার নজর কেড়েছেন। বাবা বারী সিদ্দিকীর পথ ধরে সঙ্গীতে স্বতন্ত্র অবস্থান গড়তে চলেছেন তিনি। কাউকে অনুসরণ করে নয় বরং নিজস্ব স্বকীয়তা দিয়েই বাংলা গানের জগতে নিজের অবস্থান পোক্ত করতে চান এলমা। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে নিজের গান, ক্যারিয়ার এবং ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে উইমেননিউজ২৪ডটকম-এর সাথে কথা বলেছেন তিনি।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : ঈদ কেমন করলেন।

এলমা সিদ্দিকী : এবারের ঈদটা আমার জন্য একবারেই আলাদা ছিল। বাবাকে মিস করেছি অনেক। বাবা ঈদে থাকতে অনেক মজা হত। আজ বাবা নেই । ঈদটাও কেমন নিরানন্দ লাগল। অন্যদিকে আমার নিজের মৌলিক গানের ভিডিও দেখছে সবাই্। এটি বেশ রোমাঞ্চকর ও নতুন অভিজ্ঞতা আমার জন্য ।

 

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : এবারের ঈদে তো আপনার দুইটি গানের মিউজিক ভিডিও বের হয়েছে?

এলমা সিদ্দিকী : হ্যাঁ, ঈদ উপহার হিসেবে আমার অ্যালবামের বারুদমাখা ঘরে গানটির ভিডিওটি এরই মধ্যে প্রকাশ হয়েছে বাংলাঢোলের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে। পাশাপাশি এটি আছে স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে বাংলাফ্লিক্স, রবিস্ক্রিন, এয়ারটেল স্ক্রিন ও টেলিফ্লিক্সে। সম্প্রতি রিলিজড করা হয়েছে আমি কি আর মিউজিক ভিডিওটি।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : দুটি গানের সুরকার...।

এলমা সিদ্দিকী : বারুদমাখা ঘরে গানটির সুর করেছেন কুমার বিশ্বজিৎ, সংগীতায়োজন করেছেন কিশোর। অন্যদিকে আমি কি আর গানটির সুর-সংগীতায়োজন করেছেন যথাক্রমে প্লাবণ কোরেশী ও পংকজ। দুটি গানই লিখেছেন শহীদুল্লাহ ফরায়জী। ভিডিও নির্মাণ করেছেন সাদাত হোসাইন ও হৃদয়। প্রথম গানটিতে মডেল হয়েছেন মালিহা ও মাঈন।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : আপনার অভিষেক অ্যালবামের বিষয়ে কিছু বলুন।

এলমা সিদ্দিকী : আমার অভিষেক অ্যালবামের শিরোনাম ভালোবাসার পরে। এটি এসেছে বাংলাঢোলের ব্যানারে। এর মধ্যে দুইটি গানের এবার মিউজিক ভিডিও বের হয়েছে। ২০১২ সাল থেকে অ্যালবাম করার পরিকল্পনা চলছিল। বাবা কিংবা আমি এ ব্যাপারে তাড়াহুড়ো করতে চাইনি। বাবা ব্যস্ত ছিলেন। আমিও চাপ দিইনি। স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজটা এগিয়েছে।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : সঙ্গিতে পথচলা কিভাবে।

এলমা সিদ্দিকী : আমার বাবা শুধু বাংলাদেশের নয়,পুরো এশিয়ার একজন নামী সঙ্গীত শিল্পী। বাবা কখনই আমাকে কোন বিষয়ে চাপ দেননি। গানের প্রতি আমার এতটা আসক্তি না থাকলেও বাবা যখন বাঁশি বাজাতেন তখন বিভোর হয়ে শুনতাম। ইচ্ছে করত বাবাকে বলে বাঁশিটা ধরি, কিন্তু সাহস পেতাম না।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : সেই হিসেবে নিজের একান্ত ভাললাগা থেকেই কি গানের জগতে আসা।

এলমা সিদ্দিকী : ঠিক তাই। আমি যখন এবার বাংলাদেশে আসলাম আমার মাই আমাকে গান করার অনুপ্রেরণা দেন। একজন মানুষ আরেকজন মানুষের মত কখনই হতে পারেনা।সর্বোচ্চ সে আরেকজনকে অনুসরণ করতে পারে। আমি আমার বাবর মত কখনোই হতে পারবোনা কিন্তু বাবার কাজকে ধরে এগিয়ে যেত পারব। তাছাড়া বাবার প্যাটার্ণেরে মধ্যেই আমাকে থাকতে হবে এমন কোন কথা নেই। আমার নিজেরও আলাদা ধারা থাকতে পারে। তবে সবকিছুই নির্ভর করে আমার কাজের প্রতিক্রিয়ার উপর।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : অর্থ্যাৎ...।

এলমা সিদ্দিকী : মানুষ যে কোন কাজেরই স্বীকৃতি চায়। আমি গান করি গানের প্রতি আমার ভাললাগা আর ভালবাসা থেকে। আমি দেখছি,আমার এ প্রচেষ্টায় সবার কাছ থেকে কতটুকু সাড়া পাই। কারণ যত বেশি সাড়া পাব দায়িত্ববোধ আরও বেড়ে যাবে। আরও ভাল ভাল গান সবাইকে উপহার দিতে পরবো।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : এখন পর্যন্ত কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

এলমা সিদ্দিকী :  বেশ ভালই সাড়া পাচ্ছি। আশা করি সামনে আরও সাড়া পাব।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : বর্তমান সময় তো হিপহপ, রিমিক্সের তালে মাতোয়ারা সবাই।

এলমা সিদ্দিকী : দেখুন, হিপহপ, রিমিক্সের তালে সবাই মাতোয়ারা হলেও এর রেশ কিন্তু চিরস্থায়ী নয়। এক সময় ঠিকই তা বিলুপ্ত হয়ে যাবে। আর মৌলিক গানগুলো কখনও পুরোনো হয়না। তা সবসময় জনপ্রিয় থাকে।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : তাহলে কি রিমিক্সের চল ঠিক নয়।

এলমা সিদ্দিকী : অবশ্যই রিমিক্সের দরকার আছে। কিন্তু তা আপনাকে বুঝতে হবে। আমি দেখেছি বাবা যখন কোন টিভি চ্যানেলে লাইভ গান করতেন কোন কোন অনুষ্ঠানে সবকিছুর পাশাপাশি ড্রামসেরও ব্যবহার করা হত। তাতে কিন্তু গানের মান খারাপ হত না। বরং আরও ভাল হত। কারণ বাবার নির্দেশেই টিউন ঠিক করা হত। তাই বলে না বুঝে একটি গানের টেম্পো ইচ্ছেমত বাড়িয়ে দিলাম, কমিয়ে দিলাম সেটাকে রিমিক্স বলাটা কতটুকুই বা যুক্তিযুক্ত ।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : সে হিসেবে সত্যিকারের রিমিক্সের তাল কি আমরা হারিয়ে ফেলেছি।

এলমা সিদ্দিকী : আসলেই তাই। আমরা রিমিক্সের যথযথ ব্যবহার জানিনা। গানকে বিকৃত না করে রিমিক্সের মাধ্যমে গানকে আরও সুন্দর করতে হবে। মনে রাখতে হবে গান বিকৃত করলেই কিন্তু রিমিক্স হয়না। এখানে অবশ্যই নির্দেশনার ব্যাপার থাকে।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : সামনের কর্মব্যস্ততা...।

এলমা সিদ্দিকী : এখন কুরবানীর ঈদের কথা মাথায় রেখে কাজ করছি। বাবার কিছু অসম্পূর্ণ গানের টিউন সম্প্ন্ন করলাম। এরকম তিনটি গান করলাম, আর বাকী দুইটা গানে নিজেই টিউন করছি। দেখি আরও কিছু গান করবো। বিভিন্ন শো নিয়েও ব্যস্ত থাকব।

 

উইমেননিউজ২৪ডটকম : সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

এলমা সিদ্দিকী : আপনাকেও ধন্যবাদ। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা।