ঢাকা, বৃহস্পতিবার ০১, অক্টোবর ২০২০ ১০:৫৩:০৩ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
এইচএসসির রুটিন আগামী সপ্তাহে: শিক্ষামন্ত্রী করোনায় আরও ৩২ মৃত্যু, শনাক্ত ১৪৩৬ রিফাত হত্যা: মিন্নিসহ ৬ আসামির ফাঁসি বাংলাদেশে পানি জীবন-মরণের বিষয়: প্রধানমন্ত্রী ভারতে প্রতিদিন ধর্ষণের শিকার ৮৭ নারী বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ১০ লাখ ১২ হাজার ছাড়াল

বিশ্ব হোমিওপ্যাথি দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:৪১ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০১৯ বুধবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

আজ ১০ এপ্রিল বুধবার বিশ্ব হোমিওপ্যাথি দিবস। হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা বিজ্ঞানের জনক ডা. স্যামুয়েল হ্যানিমেনের জন্মবার্ষিকীর দিনে বিশ্বব্যাপী পালিত হয় হোমিওপ্যাথি দিবস। ২০০৩ সাল থেকে হ্যানিমেনের জন্মদিন ‘বিশ্ব হোমিওপ্যাথি দিবস’ হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। বাংলাদেশে দিবসটি পালন শুরু হয় ১০ এপ্রিল ২০১৪ সাল থেকে। এর মাধ্যমে বিশ্ব হোমিওপ্যাথি আন্দোলনে যুক্ত হয় বাংলাদেশ।

দিবসটি পালনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডসহ বিভিন্ন সংগঠন এবং সারাদেশের হোমিও মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালগুলোতে কেক কাটা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে বিকাল তিনটায় রাজধানীর কাকরাইলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এই সভার আয়োজন করেছে বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ড। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

জার্মান চিকিৎসক ডা. স্যামুয়েল হ্যানিম্যান ১৭৯০ খ্রিষ্টাব্দে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা-পদ্ধতি আবিষ্কার করেন।

তিনি প্রথমে ছিলেন একজন বিখ্যাত এলোপ্যাথিক চিকিৎসক। ১৭৫৫ খ্রিষ্টাব্দের ১০ এপ্রিল জার্মানির মিশেনে স্যাকসনি নগরে হ্যানিম্যানের জন্ম। তার পুরো নাম ক্রিস্টিয়ান ফ্রেড্রিক স্যামুয়েল হ্যানিম্যান। তিনি ৮৮ বছর বয়সে ১৮৪৩ খ্রিষ্টাব্দের ২ জুলাই প্যারিসে মৃত্যুবরণ করেন।

হ্যানিম্যান ২২ বছর বয়সে ১১টি ভাষায় পাণ্ডিত্য অর্জন করেন। তিনি জার্মান, গ্রীক, ল্যাটিন, ইংরেজি, ইটালিয়ান, হিব্রু, সিরিয়াক, আরবী, স্প্যানিশ, ফরাসী ও চ্যালডেইক ভাষায় লিখতে, পড়তে ও অনুবাদ করতে পারতেন।

হ্যানিম্যানের ১১৬টি বৃহৎ গ্রন্থের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বড় গ্রন্থ হলো- ফ্রাগমেন্ট দ্য ভিরিবাম (১৮০৫), অর্গানন অব মেডিসিন (১৮১০), মেটিরিয়া মেডিকা পিউরা (১৮১১), ক্রণিক ডিজিজেস (১৮১৮)।  

-জেডসি