ঢাকা, বুধবার ২৭, মার্চ ২০১৯ ২:১২:৪১ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
শিরোনাম
স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপিত শিশুদের সুনাগরিক করে গড়ে তুলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী অস্থির নিত্যপণ্যের বাজার: জরুরি বৈঠক ডেকেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী নানা আয়োজনে উদযাপিত হচ্ছে স্বাধীনতা দিবস শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস আজ

ব্রিটিশ দম্পতির রেকর্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০১:৫০ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৯ শুক্রবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট

২১ সন্তানের জননী! কথাটি শুনে হয়তো অবাক লাগছে। অবাক লাগারই কথা। কেননা একজনের গর্ভে এতোগুলো সন্তান জন্মদানের ঘটনা পৃথিবীতে বিরল। অবিশ্বাস্যও বটে। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, ২১ সন্তান জন্ম দিয়ে রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন ব্রিটিশ দম্পতি সু এবং নোয়েল রেডফোর্ড। ব্রিটেনের সব থেকে বড় পরিবার হিসেবে এখন গণ্য হচ্ছে রেডফোর্ড পরিবার।

সু এবং নোয়েলের এই কীর্তি ঝড় তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মিশ্র প্রতিক্রিয়া জুটেছে নেটিজেনদের তরফে। কেউ কেউ তাদের প্রশংসা করলেও, তার পাশাপাশি জুটেছে ‘অপরাধী’ আখ্যাও।

এই দম্পতি জানিয়েছেন, ১৩ বছর বয়সেই প্রথম মাতৃত্বের স্বাদ পান সু। তার স্বামী নোয়েলের বয়স তখন মাত্র ১৮। এরপর ২০০৮ সালের মধ্যেই তেরোটি সন্তানের জন্ম দেন তারা!

বিশাল এই পরিবারের ভরণপোষেণের কোনো সমস্যা হয় না তাদের। কেননা ল্যাঙ্কারশায়ারে রয়েছে তাদের বড় একটি বেকারি কারখানা। তাই বড় এ সংসার চালাতে তাদের তেমন সমস্যা হচ্ছে না।

র‌্যাডফোর্ড দম্পতি জানিয়েছেন, তারা এখনো কোনো সরকারি সুবিধা নেননি সন্তানদের জন্য। ভবিষ্যতে আরও সন্তান নেবার পরিকল্পনা আছে কিনা- এ প্রসঙ্গে সিউ জানান, আমরা প্রকৃতির ওপর ছেড়ে দিয়েছি। যতদিন আমাদের সন্তান সৌভাগ্য থাকবে, আমরা গ্রহণ করব।

সম্প্রতি তাদের নিয়ে করা একটি ভিডিও ডকুমেন্টারি দেখানো হয় ব্রিটেনের টেলিভিশনে। তারপরেই প্রবলভাবে আলোচনা শুরু হয় এই ব্রিটিশ দম্পতিকে ঘিরে। কিছু কিছু দর্শক মাত্র ১৩ বছর বয়সেই মা হওয়ার জন্য সমালোচনাও করেন সু’য়ের। এতগুলি সন্তানকে কী ভাবে সময় দিয়েছেন তারা, সেই নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অনেকেই।

-জেডসি