ঢাকা, মঙ্গলবার ০২, মার্চ ২০২১ ১৯:০৫:০১ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
করোনা: দেশে একদিনে ৭ মৃত্যু, শনাক্ত ৫১৫ নারীকে পিস্তল ঠেকিয়ে টাকা ছিনতাই, গ্রেফতার ৩ পুলিশ আইনজীবীর মাধ্যমে নাইকো মামলায় হাজিরা দিলেন খালেদা পুষ্টিহীনতায় ৪ লাখ ইয়েমেনি শিশুর মৃত্যু হতে পারে: জাতিসংঘ সারাদেশে টিকা নিয়েছেন ২০ লাখ পুরুষ, ১০ লাখ নারী ভারত-পাকিস্তানকে প্রকৃত বন্ধু হিসেবে দেখতে চাই: মালালা

ভারতে প্রথমবার এক নারীর ফাঁসির অপেক্ষা, জল্লাদ প্রস্তুত

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৯:৫১ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ বৃহস্পতিবার

ভারতে প্রথমবার এক নারীর ফাঁসির অপেক্ষা, জল্লাদ প্রস্তুত

ভারতে প্রথমবার এক নারীর ফাঁসির অপেক্ষা, জল্লাদ প্রস্তুত

পবন জল্লাদ, ভারতের রাজধানী দিল্লির সেই নির্মমভাবে ধর্ষণ পরবর্তি হত্যার শিকার নির্ভয়ার দোষীদের ফাঁসিতে ঝুলিয়ে ছিলেন তিনি। চারজন আসামীকে একসঙ্গে ফাঁসি দিয়েছিলেন। সেই পবন জল্লাদের কাঁধে এবার নতুন দায়িত্ব। এবার একজন নারীকে ফাঁসিতে ঝোলানোর দায়িত্ব নিতে হবে তাকে।

১৯ ৪৭ সালে ভারতের স্বাধীনতার পর আর কোনও নারীর ফাঁসি এদেশে হয়নি। উত্তরপ্রদেশের আমরোহার শবনম নামের এক নারীর ফাঁসি হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। মাথুরায় ফাঁসি হতে পারে ওই নারীর।

নিজের পরিবারের সাতজন সদস্যকে নৃশংসভাবে খুন করেছিল শবনম। প্রায় ১২ বছর পর শবনমকে ফাঁসির নির্দেশ দিয়েছে আদালত। রাষ্ট্রপতির কাছে শাস্তি পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছিল শবনম। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ হয়েছে।

এরই মধ্যে এই নারীর ফাঁসির প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। মথুরার জেলে সেই নারীর ফাঁসির জন্য প্রস্তুতি তুঙ্গে। উত্তরপ্রদেশের একমাত্র ফাঁসির ঘরটি রয়েছে মথুরার জেলে। সেখানেই আমরোহার শবনম নামে এই নারীর ফাঁসি হতে পারে। নির্ভয়ার দোষীদের ফাঁসিতে ঝোলানো পবন ইতিমধ্যে দুবার ফাঁসিকাঠের পরীক্ষা করেছেন। সুপ্রিম কোর্টে ফাঁসির সিদ্ধান্তের পুনর্বিবেচনার আবেদন খারিজ হয়েছে। শবনমের ফাঁসি মকুবের আবেদন গিয়েছিল রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে। অপরাধের নৃশংসতার বিচার করে তিনিও ফাঁসির আদেশ বহাল রেখেছেন।

শবনমের ফাঁসি এখন স্রেফ সময়ের অপেক্ষা। মথুরা জেলে নারীদের ফাঁসিঘরে শবনমকে ফাঁসি দেওয়া হবে। বহুদিন ধরে অব্যবহৃত সেই ঘর। এমনকী ফাঁসিকাঠের ব্যবহারও এর আগে কখনও হয়নি। তাই জেল কর্তৃপক্ষের চাপ বেড়েছে। ডেথ ওয়ারেন্ট জারি হলেই শবনম নামের সেই নারী অপরাধীর ফাঁসি হবে। তার আগে সমস্ত প্রস্তুতি সেরে রাখতে চাইছে জেল কর্তৃপক্ষ। এই ঘর তৈরি হয়েছিল ১৫০ বছর আগে। তবে কোনওদিন সেখানে ফাঁসি হয়নি।

শবনমের ফাঁসির দড়ি আনা হবে বিহারের বক্সার থেকে। কিন্তু কেন স্বাধীনতার পর প্রথম নারী হিসাবে শবনমকে ফাঁসিতে ঝোলানো হবে! কী তার অপরাধ! কীসের জন্য চরম শাস্তি ভোগ করতে হবে দেশটির উত্তরপ্রদেশের এই নারীকে!

কে এই শবনম, কি তার অপরাধ : আমরোহা জেলার হাসানপুরের বাসিন্দা আমরোহার শবনম। বাবনেখেড়ি গ্রামের এক শিক্ষকের একমাত্র মেয়ে সে। সেলিম নামে স্থানীয় এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে শবনম। সুফি পরিবারের মেয়ে শবনম ইংরেজি ও ভূগোলে এমএম পাশ করেছিলেন। অবস্থাসম্পন্ন পরিবারের মেয়ে। উল্টোদিকে সেলিম ক্লাস ফাইভ ফেল। দিনমজুর হিসাবে কাজ করত সেলিম। ফলে শবনমের সঙ্গে সেলিমের সম্পর্ক বাড়ির লোক মেনে নেয়নি। ২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিলের রাতে প্রেমিক সেলিমের সঙ্গে বাবা, মা, দশ মাসের ভাইপোসহ পরিবারের সাতজনকে খুন করেছিল শবনম। কুঠার দিয়ে পরিবারের সদস্যদের শরীর ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছিল তারা দুজন।

কে এই পবন জল্লাদ : লখনউ থেকে শবনমের ডেথ ওয়ারেন্ট এলেই তিনি ফাঁসির চূড়ান্ত প্রস্তুতি শুরু করে দেবেন। পবন জল্লাদের পূর্ব পুরুষও একই পেশায়। তার দাদা কালু জল্লাদের কাছে হাতেখড়ি পবনের। তিহাড় জেলে দুদিন প্রশিক্ষণও নিয়েছিলেন তিনি। বংশপরম্পরায় পবনরা ফাঁসুড়ে। পবনের দাদু কালু একটা সময় ইন্দিরা গান্ধীর হত্যাকারী সতবন্ত সিং,কুখ্যাত রঙ্গা বিরলাদের ফাঁসি দিয়েছিলেন। কিন্তু পবনই প্রথম একসঙ্গে চারজনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়েছিলেন। আর এবারও পবন প্রথম যিনি স্বাধীন ভারতে প্রথম কোনও নারী অপরাধীর ফাঁসি দেবেন।