ঢাকা, মঙ্গলবার ২২, অক্টোবর ২০১৯ ০:৪৫:৫৭ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
এমপিওভুক্তি বিষয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে বসছেন শিক্ষামন্ত্রী খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পেলেন ড. কামাল বরগুনায় জোছনা উৎসব আগামী ১৩ নভেম্বর হাইকোর্ট বিভাগের ৯ বিচারপতির শপথ গ্রহণ দাবি না মানায় ফের আমরণ অনশনে শিক্ষকরা

রাজধানীতে ৩ দিনব্যাপী ‘গৃহায়ন মেলা’ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৯:৪৩ পিএম, ৭ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার

একটি ছোট্ট সুন্দর, সাজানো ঘরের স্বপ্ন রয়েছে আমাদের সবার। সেই স্বপ্ন পূরনে আনন্দ ঘন পরিবেশে আজ সোমবার থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে  শুরু হলো ৩ দিনব্যাপী ‘গৃহায়ন মেলা’।

বিশ্ব বসতি দিবস-২০১৯ উদযাপন উপলক্ষ্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রনালয় আয়োজিত গৃহায়ণ মেলা ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ ।

তিনি বলেছেন, বসতি হচ্ছে মানুষের মৌলিক অধিকার। অন্ন বস্ত্রের পরেই মানুষের প্রয়োজন আবাসন। সরকার ব্যাপক কাজ করছে। তিনি বলেন, ‘সবার জন্য আবাসন করা হবে। কেউ থাকবে না গৃহহীন’।

এবারের মেলায় ২৪টি আবাসন তৈরি বিষয়ক প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করছে। ৯ অক্টোবর পর্যন্ত মেলা চলবে। আয়োজকরা জানান, আবাসন মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিবারের মতোই নিয়ে এসেছে বিভিন্ন  প্রকল্প। এক ছাদের নিচে এই আয়োজনে ক্রেতাদের যাচাই-বাছাইয়ের সুযোগ তৈরি হয়েছে।

সময় করে একবার ঘুরে আসার আহবান জানিয়েছেন আয়োজকরা। তারা বলেছেন, হয়তো সাধ্যের মধ্যেই পেয়ে যাবেন স্বপ্নের সেই ঘরের (ফ্লাটের) চাবি (যন্ত্রপাতি) অথবা পৃথিবীর বুকে এক টুকরো জায়গার মালিক হয়ে সাশ্রয়ী দ্বিতল ভবন তৈরির কলাকৌশল জেতে যেতে পারেন। ক্রেতাদের সুবিধার্থে মেলায় প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন ছাড় এবং সহজ কিস্তিতে ফ্লাট নির্মাণ করার দ্রব্যসামগ্রী কেনার অফার নিয়ে এসেছে।

গৃহায়ন মেলা উদ্বোধনের আগে বিকেল ৪ টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিশ্ব বসতি দিবস-২০১৯ এর অনুষ্ঠান শুরু হয়।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রি শ ম রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ বলেন, বর্জ্যকে সম্পদে পরিণত করতে হবে। এ জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হবে।

তিনি বলেন, নগরীর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে তৈরি হচ্ছে কঠিন বর্জ্য। এসব বর্জ্যে পরিবেশ করেছে দূষিত। ৭ থেকে ১০ মেট্রিকটন বর্জ্য বিশ্বে তৈরি হচ্ছে। শতকরা ৮০ ভাগ তরল বর্জ্য পানিতে ফেলা হচ্ছে। এ কারণে ৪ লাখ থেকে ১০ লাখ মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে। সুষ্টু ভাবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করতে হবে বলে রাষ্ট্রপতি সকলের প্রতি আহবান জানান।

বর্জ্য সম্পদে পরিণত করে টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতকরণ সম্ভব বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বর্জ্যকে সম্পদে রুপান্তর করার এ যাত্রায় সকলের সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণে দেশবাসীর প্রতি আহবান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, নাগরিকদের জীবনধারণের মৌলিক উপকরণের ব্যবস্থা করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। এ মৌলিক উপকরণের তৃতীয়টি হচ্ছে বাসস্থাপন। দেশের সকল নাগরিকের জন্য বাসস্থান নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

এছাড়াও গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার বক্তব্য রাখেন।

এর পর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের প্রাঙ্গনে বিকেল ৪ টাকা ৪৫ মিনিটে ফিতা কেটে গৃহায়ণ মেলার উদ্বোধন করেন এবং মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন রাষ্ট্রপতি।  মেলায় অবস্থিত স্টল দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।