ঢাকা, রবিবার ১৯, জানুয়ারি ২০২০ ১:৩৭:১৬ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
অনশন ভাঙল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা পেছালো অবশেষে পেছালো ঢাকা সিটি নির্বাচন লিবিয়ায় সহিংসতার কারণে ঝুঁকিতে শিশুরা: ইউনিসেফ সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শাবানা আজমি

রুম্পা হত্যাকাণ্ডে অভিযোগের তীর প্রেমিকের দিকে

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১১:৩৩ এএম, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ শনিবার

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা হত্যায় খুনির গ্রেপ্তার দাবিতে সহপাঠীদের মানববন্ধন।

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা হত্যায় খুনির গ্রেপ্তার দাবিতে সহপাঠীদের মানববন্ধন।

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা হত্যাকাণ্ডে দুদিন পেরিয়ে গেলেও রহস্যের কিনারা করতে পারেনি পুলিশ। রমনার সিদ্ধেশ্বরীর একটি রাস্তা থেকে লাশ উদ্ধারের পর থেকে হত্যার মোটিভ নিয়ে তদন্ত চালালেও সন্দেহভাজন কাউকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি তদন্তসংশ্লিষ্টরা।

রুম্পার সহপাঠী ও স্বজনরা জানিয়েছেন, রুম্পার বয়ফ্রেন্ড সৈকতের কথা। হত্যাকাণ্ডে সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা থাকার বিষয়ে অনেকে সৈকতের দিকে আঙুল তুলছেন।

পুলিশ সূত্র বলছে, নিহত রুম্পার বাঁ স্তনে আঁচড় বা কামড়ের দাগ রয়েছে। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে, হত্যার আগে রুম্পা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে বয়ফ্রেন্ডের বিরুদ্ধে তথ্য থাকার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

নিহতের সহপাঠীদের মাধ্যমে পুলিশ জানতে পেরেছে, বেশ কিছুদিন ধরে সৈকতের সঙ্গে রুম্পার সম্পর্কের অবনতি হয়। বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ায় রুম্পাকে এড়িয়ে চলছিলেন। খুনের পেছনে অন্য কোনো সহপাঠী-বন্ধু বা পারিবারিক কোনো শত্রুতা কাজ করেছে কিনা তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রুম্পাকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে শুক্রবার ক্যাম্পাস উত্তাল হয়ে ওঠে। শুক্রবার বন্ধের দিনেও হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে ক্যাম্পাসে জড়ো হন সহপাঠীরা।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেন সহপাঠীসহ সব বিভাগের শিক্ষার্থীরা। যোগ দেন স্থানীয় বাসিন্দারাও। হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত সব ধরনের ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেন ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় সিদ্ধেশ্বরী শাখার শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে যান। সেখানে মানববন্ধন করেন।

বিক্ষোভ থেকে আজ শনিবার ফের কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়। শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ কমসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করেন শিক্ষকরাও।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রুম্পা আত্মহত্যা করেছেন নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে আমরা জানতে চাই। হত্যা করা হলে বিচারের নিশ্চয়তা চাই।

এদিকে গতকাল শুক্রবার সকালে ময়মনসিংহ সদরের বিজয়নগরে গ্রামের বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে রুম্পাকে দাফন করা হয়।

হবিগঞ্জে কর্মরত রুম্পার বাবা ইন্সপেক্টর রোকনউদ্দিন বলেন, আমি অনেক কষ্ট করে রুম্পাকে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করেছিলাম। কিন্তু এভাবে তার মৃত্যু হবে আমি ভাবতে পারিনি। নুসরাত হত্যার মামলার মতো দ্রুত বিচার দাবি করেন তিনি।