ঢাকা, শনিবার ২৫, জানুয়ারি ২০২০ ১৩:২৫:৪১ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
বিশ্বের দূষিত বাতাসের শহরের তালিকায় ঢাকা ৪র্থ মঙ্গলবার থেকে হতে পারে বৃষ্টি, বাড়বে শীতের প্রকোপ দেশজুড়ে চলছে স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন তুরস্কে ৬ দশমিক ৭ মাত্রার ভূমিকম্পে নিহত ১৮ চীনে ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪১

লন্ডনের হাইকোর্টে শুনানিতে উপস্থিত হলেন প্রিন্সেস হায়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৬:০৩ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট

দুবাইয়ের কোটিপতি শাসকের পালিয়ে যাওয়া স্ত্রী প্রিন্সেস হায়া বিনতে আল-হুসেইন তাদের বাচ্চাদের বিষয়ে শুনানির দ্বিতীয় দিনেও লন্ডনের হাইকোর্টে উপস্থিত হয়েছিলেন। তবে মামলার আসামী ও তার প্রাক্তন স্বামী শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল-মাকতুম শুনানিতে অংশ নেননি।

প্রিন্সেস হায়া তার বিখ্যাত আইনজীবী বিবাহ-বিচ্ছেদ বিশেষজ্ঞ ব্যারনেস শ্যাকলেটনের সাথে আদালতে উপস্থিত হন। ‘স্টিল ম্যাগনোলিয়া’ নামে পরিচিত শ্যাকলেটন ব্রিটিশ রাজপরিবারের উকিল। তিনি প্রিন্স চার্লসের সাথে প্রিন্সেস ডায়ানার এবং পল ম্যাককার্টনি-হিদার মিলসের বিবাহ-বিচ্ছেদ পরিচালনা করেছিলেন। বর্তমানে তিনি প্রিন্স উইলিয়াম ও হ্যারির সলিসিটর। ৪৫ বছরের প্রিন্সেস হায়া জর্ডানের প্রয়াত শাসক হুসেনের কন্যা এবং বর্তমান শাসক আবদুল্লাহর সৎ বোন। তিনি দুবাইয়ের আমিরের ছয় নম্বর স্ত্রী ছিলেন৷ আগের শুনানিতে তিনি তার এক সন্তানকে জোরপূর্বক বিয়ে দেয়া থেকে রক্ষা করতে এবং শ্লীলতাহানি ঠেকানোর জন্য আদালতে আবেদন করেছিলেন।

চলতি বছরের শুরুর দিকে দুবাই থেকে পালিয়ে লন্ডনে আশ্রয় নেন তিনি৷ জানা গেছে, প্রিন্সেস হায়া ও দুবাই আমির শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদের ১১ বছর বয়সি একটি কন্যা ও ৭ বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তান রয়েছে৷ সন্তানদের নিজের কাছে রাখার দাবি নিয়ে আদালতে হাজির হন হায়া৷

লন্ডনে পালিয়ে এসে বেশ কয়েকটি মামলা দায়ের করেন তিনি৷ এর মধ্য রয়েছে সন্তানদের সুরক্ষায় জোরপূর্বক বিয়ে দেওয়া ঠেকানো ও সব ধরনের হয়রানি থেকে নিজেকে সুরক্ষার মামলা৷

গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, হায়া লন্ডনের কেনসিংটনে অবস্থিত একটি মনোরম বাড়িতে বাস করেন যার মূল্য আনুমানিক দশ কোটি ডলার৷ হায়া পড়াশোনা করেছেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে৷ তিনি একজন ক্রীড়াবিদও৷ ২০০০ সালের সিডনিতে অনুষ্ঠিত অলিম্পিকেও অংশগ্রহন করেছিলেন তিনি৷ এদিকে আমির শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদেরও সম্পর্ক রয়েছে বৃটিশ রাজপরিবারের সাথে৷ বিষয়টি এখনো স্পষ্ট নয় কেন প্রিন্সেস হায়া দেশ ত্যাগ করেছেন৷ তবে গণমাধ্যম বলছে এর মাঝে কোন পারিবারিক জটিলতা থাকতে পারে৷ যুক্তরাজ্যের সাথে দুবাইয়ের রয়েছে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক৷ প্রিন্সেস হায়ার এ বিষয়টি নিয়ে দুবাইয়ের সাথে পুরোনো এ সম্পর্ক নষ্ট করবে না যুক্তরাজ্য, বলছেন বিশেষজ্ঞরা৷ এদিকে হায়ার ভাই আবদুল্লাহও বেশ ঘনিষ্ঠ দুবাই শাসক মোহাম্মদ বিন রশিদের৷ আবার দুদেশের মধ্যে রয়েছে নিবিড় অর্থনৈতিক সম্পর্ক৷ এসব মিলিয়ে পরিস্থিতি বেশ জটিল৷ সূত্র: ডেইলি মেইল, ডয়চে ভেলে।

-জেডসি