ঢাকা, সোমবার ০৯, ডিসেম্বর ২০১৯ ১:১৫:১৮ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে স্বর্ণজয়ী সালমারা আরচ্যারির ১০ ইভেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশ রুম্পা হত্যা: বিচার দাবিতে বিক্ষোভে উত্তাল স্টামফোর্ড এসএ গেমস : আর্চারিতে মেয়েদের সোনা জয় কুমিল্লায় বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে গৃহবধূর মৃত্যু

শত প্রতিকূলতার মধ্যেও বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:০৪ পিএম, ১২ আগস্ট ২০১৯ সোমবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

শত প্রতিকূলতার মধ্যেও বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং যাবে বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আজ দেশের উন্নয়নের যে অগ্রযাত্রা সেটা অব্যাহত থাক। মানুষ উন্নত, সুন্দর জীবন পাক, কেউ যেন খাটো করে দেখতে না পারে, এদেশের মানুষ সর্বত্র মর্যাদা পায়, সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি।

সোমবার ঈদুল আজহা উপলক্ষে সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের সময় তিনি এসব কথা বলেন।প্রধানমন্ত্রীর সরকরি বাসভবন গণভবনে শুভেচ্ছা বিনিময়ে তিনি বলেন, ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়া আমার লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আজ দেশের উন্নয়নের যে অগ্রযাত্রা সেটা অব্যাহত থাক। মানুষ উন্নত, সুন্দর জীবন পাক, কেউ যেন খাটো করে দেখতে না পারে, এদেশের মানুষ সর্বত্র মর্যাদা পায়, সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি।

‌‘দেশে মানুষ যে আস্থা ও বিশ্বাস রেখে আমাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে, সেই আস্থার মর্যাদা আমি রাখবো। যে দায়িত্ব দেশের মানুষ তুলে দিয়েছে; সেই দায়িত্ব যাতে পালন করতে পারি সেই দোয়া চাই,’ বললেন শেখ হাসিনা।

নিজের চোখের অপারেশন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বয়স হয়েছে, বুড়ো হয়ে গেছি। কয়েকদিন আগে আমার চোখের সানি অপারেশন করাতে হয়েছে। এখনও পাঁচবার করে চোখে ওষুধ নিতে হচ্ছে।

বক্তব্যের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী দেশবাসী ও প্রবাসী বাঙালি যারা আছেন- সবাইকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানান। সেই সঙ্গে তিনি মুসলিম উম্মাকেও ঈদের শুভেচ্ছা জানান।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধে সব শহীদের আত্মত্যাগের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শেখ হাসিনা।

‘মহান আত্মত্যাগের মহিমা নিয়েই ঈদ এসেছে। জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান যিনি আমাদের স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। সেই মহান নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাই।’

তিনি বলেন, এখন আগস্ট মাস চলছে, ১২ তারিখ। এই দিনও তিনি বেঁচে ছিলেন। আমরা বিদেশে ছিলাম। ১৩ আগস্ট সবশেষ আমাদের সঙ্গে কথা হয়। ১৫ আগস্ট আমার বাবা, মা, ভাইসহ সবাইকে হত্যা করা হয়। আগস্ট মাস আমাদের জন্য কষ্ট, বেদনা নিয়ে আসে।

সবার জন্য দোয়া চেয়ে তিনি বলেন, আজকের এই দিনে আত্মত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত হয়ে প্রত্যেকেই যাতে দেশের মানুষের জন্য ত্যাগ স্বীকার করতে পারে সেই কামনা করছি।

গণমানুষের ভবন গণভবনে আরো একবার প্রাণের উচ্ছ্বাসে মিলিত হলো হাজারো মানুষ। ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়ের এ আয়োজনে ছিল না ধর্ম-বর্ণ, বয়স কিংবা শ্রেণি-পেশার ভেদাভেদ। অসহায়-দুস্থ থেকে শুরু করে গণভবনে সরকার প্রধানকে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, আইনজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

শুভেচ্ছা বিনিময়ের এক ফাঁকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় অতীতের মতো আগামীতে কেবল মানুষের উন্নয়নে কাজ করে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

দলীয় নেতাকর্মীদের জন্য বিভিন্ন দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্যও ছিলো আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর।

-জেডসি