ঢাকা, বুধবার ১৩, নভেম্বর ২০১৯ ২৩:৪৮:০৪ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
রোহিঙ্গা সমস্যার জন্য দায়ী জিয়া : প্রধানমন্ত্রী ২০২০ সালের মধ্যে শতভাগ মানুষ বিদ্যুৎ পাবে: প্রধানমন্ত্রী নিজেকে বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট দাবি করলেন জেনাইন ৭ বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ট্রেন দুর্ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা

২৪ ঘন্টায় ঢাকাসহ সারাদেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৪৪

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৬:৩০ পিএম, ২৯ অক্টোবর ২০১৯ মঙ্গলবার

গত ২৪ ঘন্টায় (২৮ অক্টোবর সকাল ৮ টা থেকে ২৯ অক্টোবর সকাল ৮ টা পর্যন্ত) সারাদেশে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়েছে ২৪৮ জন। এরমধ্যে ঢাকার বাইরে বেশি অর্থাৎ ১৪৪ জন। ঢাকায় আক্রান্ত হয়েছে ১০৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সী অপারেশন্স সেন্টার এবং কন্ট্রােল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়শা আক্তার এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, এ বছরের জানুয়ারি থেকে ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত সারাদেশে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়েছে ৯৫ হাজার ৬২০ জন।এদের মধ্যে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৯৪ হাজার ৪৩৭ জন।

তিনি জানান, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত ভর্তি রোগর সংখ্যা ৯৩৫ জন। ঢাকার ৪১টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে ডেঙ্গু আক্রান্ত ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৪০৭ জন।অন্যান্য বিভাগে বর্তমানে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫২৮ জন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২০ জন, মিটফোর্ড হাসপাতালে ১৮ জন, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৪ জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১০ জন, শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৭ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছে।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ঢাকা বিভাগে (ঢাকা শহর ব্যতীত) ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়েছে ২৪ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩২ জন, খূলনা বিভাগে ৪০ জন, রংপুর বিভাগে ৩ জন, রাজশাহী বিভাগে ৯ জন, বরিশাল বিভাগে ২৯ জন, সিলেট বিভাগে ২ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ৫ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে।

এদিকে, রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে (আইইডিসিআর) ডেঙ্গুসন্দেহে ২৪৮ টি মৃত্যুর তথ্য প্রেরিত হয়েছে।

এরমধ্যে আইইডিসিআর ১৭১ টি মৃত্যু পর্যালোচনা সমাপ্ত করে ১০৭ টি মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে।

আইইডিসিআর এর প্রিন্সিপ্যাল সায়েন্টিফিক অফিসার ড. এ এস এম আলমগীর হােসেন জানান, সাধারণত সেপ্টেম্বর মাসের শেষে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমে যায়।কিন্তু এবার অক্টোবরের শেষে এসেও (২৯ অক্টোবর ২৮৪ জন) আড়াইজনের মতো রোগী পাওয়া যাচ্ছে। এটা মোটেই ভাল লক্ষণ নয়।

তিনি বলেন, আমরা সবসময় দেখি বৃষ্টি বাড়লে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ে। এবারও সেটাই দেখা যাচ্ছে। এ অবস্থায় ডেঙ্গু প্রতিরোধে সতর্কতার বিকল্প নেই। আমাদের মশা নিধনে মনোযোগী হতে হবে।