ঢাকা, শনিবার ২৩, অক্টোবর ২০২১ ১৫:০৮:১৫ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
মণ্ডপে হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে গণঅনশন ট্রেনে কাটা পড়ে ছেলেসহ বাবা-মা নিহত যুক্তরাজ্যে নতুন বিপদ ‘ডেল্টা প্লাস’ ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনা উপসর্গে ৩ জনের মৃত্যু রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ফের অনশনে বিএফইউজে নির্বাচনের ভোট শুরু বিশ্বজুড়ে বেড়েছে সংক্রমণ, কমেছে মৃত্যু

৩৪৮ জন উদ্যোক্তা তৈরি করেছেন আফরোজা সুলতানা

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৮:৩১ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০২১ বুধবার

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আফরোজা সুলতানা। যিনি গত ২৩ বছর আগে সমাজের অবহেলিত নারীদের কল্যাণে কাজ শুরু করেন। ১৯৯৮ সাল থেকে নারী উন্নয়ন ফোরাম নামে একটি সংস্থার মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। এরই অংশ হিসেবে ছোট একটি প্রকল্পের মাধ্যমে মাত্র দেড় বছরে ৩৪৮ জন অসহায় ও দুস্থ নারীকে উদ্যোক্তা হিসেবে তৈরি করেছেন।

জানা যায়, ২০১৯ সালের জুন থেকে ‘ফরিদপুর ও রাজবাড়ীর বিভিন্ন উপজেলার দুস্থ এবং অসহায় নারীদের আয়বর্ধক কার্যক্রমের ওপর প্রশিক্ষণ’ শীর্ষক প্রকল্পটি শুরু করে নারী উন্নয়ন ফোরাম। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে নারী উন্নয়ন ফোরাম এ প্রকল্পটি নারীদের বিভিন্ন আয়বর্ধক প্রশিক্ষণে উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়ক ভূমিকা রাখছে। 

চলমান এ প্রকল্পটির সার্বিক পরিস্থিতি সরেজমিনে পর্যবেক্ষণ করতে এবং তৈরি হওয়া নারী উদ্যোক্তাদের উৎসাহ দিতে বুধবার (১৩ অক্টোবর) ফরিদপুরের মুন্সিবাজারে নারী উন্নয়ন ফোরামের অফিস পরিদর্শন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

এ সাফল্যের বিষয়ে জানতে চাইলে আফরোজা সুলতানা বলেন, ‘ফরিদপুর ও রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন উপজেলার দুস্থ ও অসহায় নারীদের আয়বর্ধক কার্যক্রমের ওপর প্রশিক্ষণ’ শীর্ষক প্রকল্পে ফরিদপুর সদর, সদরপুর, ভাঙ্গা এবং রাজবাড়ী সদর, বালিয়াকান্দি, গোয়ালন্দ উপজেলার দুস্থ ও অসহায় নারীদের ৫টি ট্রেডে আয়বর্ধক প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে বিউটিফিকেশন, হস্তশিল্প, ব্লকবাটিক, দর্জি বিজ্ঞান ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে নারী উন্নয়ন ফোরাম। 

তিনি আরও বলেন, আমরা গত দেড় বছরে ৮ হাজার ৫৫০ জন দুস্থ ও অসহায় নারীদের ৫টি ট্রেডে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কোর্স সফলতার সঙ্গে শেষ করেছি। নারী উন্নয়ন ফোরাম থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বর্তমানে ৩৪৮ জন উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ শুরু করেছে। এই ৩৪৮ জন উদ্যোক্তার সঙ্গে আরও প্রায় ২ হাজার লোক কাজ করছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী  বলেন, আমি আশা করি উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে নারী উন্নয়ন ফোরাম নারীদের অর্থনৈতিকভাবে সাবলম্বী করার পাশাপাশি নারীর ক্ষমতায়নে বিশেষ মনোযোগী হবে। মুজিব জন্মশতবার্ষিকী তথা মুজিবর্ষে ৩৪৮ জন নারী উদ্যোক্তা তৈরি করে নারী উন্নয়ন ফোরাম এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নারীদের নিয়ে অঙ্গীকার প্রতিষ্ঠাতায় নারী উন্নয়ন ফোরামের উদ্যোগ বিশেষ প্রশংসার দাবিদার বলে আমি মনে করি।


তিনি আরও বলেন, নারীদের উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থাগুলো এগিয়ে এসে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার বাস্তবায়নে কার্যকর ভূমিকা রাখবে। আমি সমাজসেবা অধিদফতর ও নারী উন্নয়ন ফোরামের এ যৌথ কার্যক্রমকে স্বাগত জানাই। ফোরামটি তার প্রজ্ঞা, মননশীলতা, অন্তঃদৃষ্টি, ইতিহাসবোধ, মানবিকতা ও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে অবহেলিত নারীদের একটি সামাজিক অবস্থানে পৌঁছে দেওয়ার জন্য অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।