ঢাকা, শনিবার ০৬, জুন ২০২০ ২২:৪৬:১২ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

ঋষি কাপুর, আমার এক টুকরো ছোটবেলার প্রস্থান: ঈহিতা জলিল

ঈহিতা জলিল

উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১০:৪৩ পিএম, ২ মে ২০২০ শনিবার

ঈহিতা জলিল

ঈহিতা জলিল

ঋষি কাপুর আর শ্রীদেবী আমার জীবনে এক সঙ্গে এসেছিলেন। কোন ক্লাসে পড়ি তখন টু কি থ্রী!! বাসায় এক নতুন যন্ত্রের আগমন। ভিসিপি। আর সাথে দুইটা গানের ক্যাসেট। তখন ওগুলো গীতমালা নামে পরিচিত ছিলো। একটা ক্যাসেটের নাম ছিলো "রূপ কি রাণী শ্রীদেবী" যেটাতে শুধুই শ্রীদেবীর গান ছিলো। ওখানে তার "নাগিন" সিনেমার একটা গান ছিলো " মে তেরে দুশমন.. দুশমন তু মেরা.. মে নাগান তু সাপেরা" এই গান নিয়ে আমার আর আমার কাজিনের ব্যাপক আগ্রহ ছিলো। সাপ মানুষ হয়ে যাচ্ছে!!  কি রকম গা শিউরে ওঠা ব্যাপার!! ঐ গানের শেষ দৃশ্যে ঋষি কাপুরের আগমন। ঠাস করে শ্রীদেবীকে চড় দিয়ে!! পরে সিনেমাটি পুরো দেখেছিলাম। তখন জানলাম শ্রীদেবীকে চড় দেয়া নায়কটি-ই হলেন ঋষি কাপুর।

আরেকটি যে ক্যাসেট ছিলো ওটাতে ছিলো আরো পুরনো হিন্দি সিনেমার গান। সেই সাদা কালো যুগের। ওখানে অনেক গানের সাথে  ছিলো শ্রী ৪২০ এবং সাঙ্গাম সিনেমার গান। সাদাকালো গান "পেয়ার হুয়া ইকরার হুয়া" রাজ কাপুর আর নার্গিসের লিপে ওখানে যে তিন শিশু ছিলো যার একটি ছিলেন ঋষি। সাঙ্গামের কথা যে জন্য বলছি কারণ ঐ সিনেমার একটি গান আমাদের কাছে খুব জনপ্রিয় ছিলো। রাজ কাপুর আর বৈজয়ন্তীমালার লিপে " ম্যা ক্যায়া কারু রাম মুঝে বুড্ঢা মিল গায়া" আমি আর আমার কাজিন বারবার টেনে ওটা দেখতাম। আর নাগিন সিনেমা দেখতাম।

তখন আব্বু একদিন বললো জানো এই দুই সিনেমার নায়কদের মধ্যে কি সম্পর্ক? তারা বাবা ও ছেলে! আমার মনের ভিতর দুজনের চেহারা একদম বসে গেছে ততক্ষণে। পরে যত বড় হয়েছি পুরনো বহু সিনেমা দেখেছি। কাপুর পরিবারের অন্য সদস্যদের জানার চেষ্টা করেছি। রাজ কাপুরের অভিনয় ও পরিচালনায় "মেরা নাম জোকার" সিনেমায় সার্কাসের জোকার রাজুর  (রাজকাপুর) ছোট বেলার ভূমিকায় অভিনয় করেই আমার ধারণা ঋষি তার জাত চিনিয়েছিলেন। একি সিনেমায় পিতা-পুত্রের অমন অনবদ্য অভিনয় আমার মতে শুধু বলিউডে নয় সারা বিশ্বেই বিরল।

এডাল্ট চরিত্রে ঋষি কাপুরকে প্রথম দেখা যায় "ববি" ফিল্মে ডিম্পল কাপাডিয়ার সাথে। "হাম তুম এক কামড়ে মে বানধ হো...ওর চাবি খো যায়ে" অথবা "ম্যা শায়ের তো নেহি... মাগার এ্যা হাসি.. যাবসে দেখা ম্যানে তুঝকো মুঝকো শায়েরি আগায়ি"র মতো বিখ্যাত গান ঋষির লিপে আমরা পাই।

এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। অমর আকবর এন্থনী, নাসিব, সাগার, দুশরা আদমী, প্রেম গ্রন্থ, চাঁদনী, দামিনী, সাজান কা ঘার এমন বহু সিনেমা অমর হয়েছে তাঁর অভিনয়ে। কার্য মুভিতে "এক হাসিনা থি" গান সব জেনারেশন এর কাছেই সমান জনপ্রিয়।

"কাভি কাভি" সিনেমায় স্ত্রী নীতু সিং এর সাথে তার অভিনয় আজও হৃদয়ে ঝড় তোলে। আর ঋষির যোগ্য সন্তান হিসেবে বলিউড কাঁপাচ্ছেন আজকের রনবীর কাপুর।

ঋষি কাপুরই বোধহয় তার সমসাময়িক এবং পরের জেনারেশনের সব নায়িকাদের সাথে মূল চরিত্রে দাপিয়ে অভিনয় করেছেন। এমনকি দিব্যা ভারতীর সাথেও "দিওয়ানে" সিনেমায় অনুজ শাহরুখ খানকে সাথে নিয়ে তাকে অভিনয় করতে দেখা যায়। প্রায় ৩০ জন নায়িকা তার বিপরীতে অভিষেক অভিনয় করেছেন।

দাদা পৃত্থ্বীরাজ কাপুর ও বাবা রাজ কাপুরের যোগ্য উত্তরসূরী ঋষি  কাপুরকে বলিউডের "অরিজিনাল প্রিন্স অফ রোমান্স" বলা হয়।  মূল নায়ক চরিত্রে অভিনয় করার পর যখন তিনি চরিত্রাভিনেতার কাজ শুরু করলেন তখনও তিনি সফলভাবে সেটি করেছেন। আসলে অভিনয় যে তার রক্তে এটি তিনি বারবারই প্রমাণ করেছেন। সেটি স্ত্রী নিতু সিং এর সাথে "দো দুনি চার" এর স্কুল টিচার হোক কিংবা "স্টুডেন্ট অফ দা ইয়ার" এর ডিন চরিত্রে-ই হোক। ২০১৮ সালে তার অভিনীত "মূলক" সিনেমায় তার অনবদ্য শক্তিশালী অভিনয় আমাকে মুগ্ধ করেছে। "ববি" র ঋষি আর "মূলক" এর ঋষি। দুইজন একেবারে দুই মেরুতে অবস্থিত। অমিতাভ বচ্চন এর সাথে "102 Not Out" সিনেমায় তার অভিনয় থেকে চোখ ফেরানো যায় না।

ভারতীয় অভিনেতা, পরিচালক, প্রযোজক ঋষি রাজ কাপুর গত ৩০ এপ্রিল ক্যানসারের কাছে হেরে গিয়ে ৬৭ বছর বয়সে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন। তার চলনে বলনে অভিনয়ে সর্বত্র যে আভিজাত্য ও প্রতিভার বিচ্ছুরণ ঘটতো সেটি আমাদের মতো দর্শক অনুভব করে যাবে আমৃত্যু। "সাতষট্টি" এটি কি আসলেই যাবার সময়!? হতেই তো পারতো "102 Not Out" !! (সূত্র : ইন্টারনেট)

ঈহিতা জলিল : সাংবাদিক।