ঢাকা, শনিবার ১৩, জুলাই ২০২৪ ৮:৩৬:১৮ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

তিন নারী খেলোয়াড়ের উপর হামলা, শাস্তির দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক

উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৮:৫৪ পিএম, ৩১ জুলাই ২০২৩ সোমবার

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

ফুটবল খেলার জন্য খুলনা জেলার বটিয়াঘাটায় বিভাগীয় অনূর্ধ্ব- ১৭ দলের ফুটবলার সাদিয়া নাসরিন, মঙ্গলী বাগচী এবং হাজেরা খাতুনের উপর হামলা এবং তাদের পরিবারকে অপদস্ত করার ঘটনায় ক্ষোভ ও  একইসঙ্গে এই ঘটনায় জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছে।নারীবাদি সংগঠন মহিলা পরিষদ।

সোমবার (৩১ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানুর সই করা বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ফুটবল খেলার জন্য খুলনা জেলার বটিয়াঘাটার তেতুঁলতলা গ্রামে বিভাগীয় অনুর্ধ্ব- ১৭ দলের ফুটবলার সাদিয়া নাসরিনের খেলার ছবি তুলে পরিবারকে দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে নানা ধরনের নেতিবাচক মন্তব্য করে নুপুর খাতুন। এই বিষয়টি কেন করা হলো জিজ্ঞাসা করলে এবং এর প্রতিবাদ করলে নুপুর খাতুনের পরিবারের সবাই লোহার রডসহ সাদিয়া নাসরিন এবং তার সতীর্থ মঙ্গলী বাগচী এবং হাজেরা খাতুনের উপর হামলা করে এবং নারীরা ফুটবল খেললে তাদের গ্রাম থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দেয় তারা।   

কিশোরীদের খেলাধুলার জন্য সুস্থ সাংস্কৃতিকে পরিবেশ তৈরির আহ্বান জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, স্বাধীনতার ৫২ বছর পরে স্বাধীন সার্বভৌম একটি রাষ্ট্রে নারী ফুটবলারদের উপর এই ধরনের নারী বিদ্বেষী মৌলবাদী আক্রমণ বিশেষভাবে 
উদ্বেগজনক।

সমাজের মধ্যে বসবাসকারী নারী বিদ্বেষী ধর্মীয় মৌলবাদ গোষ্ঠীর এই ধরনের কর্মকাণ্ড সম্মিলিতভাবে এখনই প্রতিহত করা দরকার, একইসঙ্গে আমাদের সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলে  কিশোরী বা নারীদের খেলাধুলার জন্য সুষ্ঠু আবহ তৈরি করা দরকার।   খেলাধুলা, শরীর চর্চা সহ বিনোদনে অংশগ্রহণ  নারীর সাংবিধানিক অধিকার এবং এ ক্ষেত্রে তারা যখন এগিয়েও এসেছে , সেখানে সমাজ ও রাষ্ট্রেে দায়িত্ব তাদের সহযোগিতা করা।’

বিবৃতিতে বলা হয়, নারী ফুটবল দল দেশের জন্য অনেক সম্মান বয়ে আনলেও নারী হিসেবে তাদের প্রতি অনেক ক্ষেত্রেই  বৈষম্য করা হয়ে থাকে এবং এই নারী  ফুটবলারদের অনেক বাধা বিপত্তি মোকাবেলা বরে তাদের খেলাধুলা চালিয়ে যেতে হয়।

বিবৃতিতে এই ঘটনায় জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়ে সব ধরনের নারী বিদ্বেষী মৌলবাদী কর্মকাণ্ডের প্রতিরোধ ও পুনরাবৃত্তিরোধে সরকার. প্রশাসনসহ নাগরিক সমাজের সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে।