ঢাকা, শনিবার ০২, মার্চ ২০২৪ ১৪:৫১:০১ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

সহকর্মীকে চড় মারায় এএজি তামান্নার নিয়োগ বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক

উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১১:২৮ পিএম, ৯ নভেম্বর ২০২৩ বৃহস্পতিবার

তামান্না ফেরদৌস  

তামান্না ফেরদৌস  

সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল (এএজি) মজিবুর রহমান মজিবকে চড়-থাপ্পড় মারার ঘটনায় আরেক এএজি তামান্না ফেরদৌসের নিয়োগ বাতিল করা হয়েছে। 

আজ বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে আইন মন্ত্রণালয়ের সলিসিটর উইংয়ের সলিসিটর রুনা নাহিদ আকতার স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট তামান্না ফেরদৌসের সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে মন্ত্রণালয়ের বিগত ০৭-০৭-২০১১ খ্রি তারিখের ০৯ / সলিসিটর / ২০০৯-৬৩ নম্বর স্মারকে প্রদত্ত নিয়োগ আদেশ বাতিলক্রমে তাকে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল পদ হতে অব্যাহতি দেওয়া হলো। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।

জানা যায়, গত ৩ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের প্রস্তুতি সভা শেষে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদকের কক্ষের সামনে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মজিবুর রহমান মজিব ও তামান্না ফেরদৌসের মধ্যে মারামারি হয়। 

এ ঘটনায় ব্যবস্থা নিতে ওই দিনই আইনজীবী মজিবুর রহমান অ্যাটর্নি জেনারেল বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেন।

এরপর গত ১০ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্ট বারের সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুন নুর দুলাল বরাবর অভিযোগ করেন এএজি মজিবুর রহমান মজিব। মারামারির ঘটনায় তার সম্মানহানি হয়েছে উল্লেখ করে তিনি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত চান ও অপরাধীকে বিচারের সন্মুখীন করতে বলেন। অভিযোগকারী ও অভিযুক্ত দুজনই সুপ্রিম কোর্ট বারের সদস্য।  

লিখিত আবেদনে মজিবুর রহমান মজিব উল্লেখ করেন, ‘দুপুর ২টার সময় বারের সম্পাদকের কক্ষের সামনে অবস্থানকালে আগের শত্রুতার জের ধরে রাজনৈতিক কথাবার্তা চলাকালে হঠাৎ করে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল তামান্না ফেরদৌস আমাকে গালিগালাজ করেন। আমি এর প্রতিবাদ করলে তিনি আমার দুই গালে দুইটা চড়-থাপ্পড় মারেন। এমনকি বেশি বাড়াবাড়ি করলে তিনি আমাকে বহিরাগত লোকজন দিয়ে খুন করার হুমকি দেন।’

তিনি অভিযোগে আরও লেখেন, ‘ওই ঘটনাস্থলে বিজ্ঞ আইনজীবীরা ও অন্যান্য লোকজন উপস্থিত ছিলেন। এ ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখলে প্রকৃত বিষয়টি জানা যাবে। এ ঘটনায় আমার মান, সম্মান ও ইজ্জতহানি ঘটে। আমি এর বিচার চাই।’