ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২০, জুন ২০২৪ ১৪:৫৫:১৯ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
সিলেট ও ​​সুনামগঞ্জে অবনতি, আরও ৩ জেলায় বন্যার শঙ্কা যাত্রাবাড়ীতে দম্পতিকে গলা কেটে হত্যা কক্সবাজার সীমান্তে গুলি ছোড়ার ঘটনা জাতিসংঘে উত্থাপন সুফিয়া কামাল গণতান্ত্রিক ও নারী মুক্তি আন্দোলনের পথিকৃৎ: প্রধানমন্ত্রী কবি সুফিয়া কামালের জন্মদিন আজ ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছে কর্মজীবী মানুষ

মে মাসে ধর্ষণের শিকার ৬২ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৯:৫৩ এএম, ৩ জুন ২০২৪ সোমবার

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

সদ্য শেষ হওয়া মে মাসে সারাদেশে ২৪৩ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৬২ জন। এমন তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

রোববার (২ জুন) সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের মে মাসে নারী ও কন্যাশিশুসহ মোট ২৪৩ জন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৪০ কন্যাসহ ৬২ জন। তার মধ্যে ১২ কন্যাসহ ২০ জন হয়েছে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার। ২ কন্যাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। ১ জন ধর্ষণের কারণে আত্মহত্যা করেছে এবং ৩ কন্যাসহ ৭ জনকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে ২২ কন্যাসহ ২৩ জন। উত্ত্যক্তকরণের শিকার হয়েছে ৬ কন্যাসহ ৭ জন। এর মধ্যে ১ কন্যা উত্ত্যক্তকরণের কারণে আত্মহত্যাও করেছে।

প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, এই সময়ে নারী ও কন্যা পাচারের ঘটনা ঘটেছে ২টি। অগ্নিদগ্ধের শিকার হয়েছে ২ জন, এর মধ্যে ১ জনের অগ্নিদগ্ধের কারণে মৃত্যু হয়েছে। যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৫ জন, এর মধ্যে ২ জনকে যৌতুকের কারণে হত্যা করা হয়েছে। শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১১ জন, এরমধ্যে ২ জন কন্যা। পারিবারিক সহিংতায় শারীরিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ৩টি। ১ কন্যা গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বিভিন্ন কারণে ৭ কন্যাসহ ৪৬ জনকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়াও ৪ জনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। ৩ কন্যাসহ ২২ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ৫ কন্যাসহ ২০ জনের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে ১ কন্যা আত্মহত্যার প্ররোচনার শিকার হয়েছে। ৩ কন্যাসহ ৪ জন অপহরণের শিকার এবং ১ কন্যাকে অপহরণের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। ৩ কন্যাসহ ৪ জন সাইবার ক্রাইমের শিকার হয়েছে। বাল্যবিবাহের ঘটনা ঘটেছে ২টি। বাল্যবিবাহের ঘটনা প্রতিরোধ করা হয়েছে ৫টি।

এ ছাড়া ৫ কন্যাসহ ১২ জন নারী বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়।

প্রসঙ্গত, দেশের বহুল প্রচারিত ১৩টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা বিশ্লেষণের মাধ্যমে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের লিগ্যাল এইড উপ-পরিষদ প্রতি মাসে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে।