ঢাকা, বুধবার ২৫, নভেম্বর ২০২০ ৪:৪৬:৪১ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
দেশে করোনা শনাক্ত রোগী সাড়ে ৪ লাখ ছাড়াল বিবিসির বর্ষসেরা ১০০ নারী ব্যক্তিত্বের তালিকায় রিনা ও রিমা স্কুলে ভর্তির বিষয়ে কাল শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন শেখ হাসিনা-মোদির ভার্চুয়াল বৈঠক ডিসেম্বরে বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ছাড়াল ১৪ লাখ

ফেব্রুয়ারির মধ্যে অর্ধেক ভারতীয় করোনা আক্রান্ত হবে!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১২:০৩ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২০ মঙ্গলবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে অর্ধেকের বেশি ভারতীয় করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্ত হতে পারেন। সে হিসাবে দেশটির ১৩০ কোটি নাগরিকের ৬৫ কোটিই করোনা সংক্রমিত হতে পারেন।

করোনা নিয়ে কাজ করা ফেডারেল গভর্নমেন্ট কমিটির এক সদস্য সোমবার এমনটাই দাবি করেছেন বলে জানিয়েছে এই সময়।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী, সোমবার পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হন ৭৫ লাখের বেশি ভারতীয়। সংক্রমণের নিরিখে আমেরিকার পরেই রয়েছে ভারত।

তবে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে সংক্রমণ শিখর ছোঁয়ার পর ক্রমশ কমছে আক্রান্তের সংখ্যা। দৈনিক সংক্রমণ প্রায় লাখ থেকে কমে ৬১ হাজারে নেমে এসেছে।

সরকার গঠিত ১০ সদস্যের কমিটি রবিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে একটি রিপোর্ট জমা দিয়েছে।

কমিটিই এক সদস্য মণীন্দ্র আগরওয়াল বলেছেন, ‘আমাদের গাণিতিক মডেলের হিসাব বলছে- ভারতের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৩০ শতাংশ ইতোমধ্যেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন ইংরেজি বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যেই এই ৩০ শতাংশ ৫০ শতাংশে পৌঁছতে পারে।’

মণীন্দ্র কানপুরের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট ফর টেকনোলজির প্রফেসর কমিটির এই সদস্যের দাবি, সরকারের সেরো সমীক্ষায় (sero surveys) যা উল্লেখ করা হয়েছে, তার থেকে ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই বেশি।

সেরোলজিক্যাল সমীক্ষা মতে, সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভারতীয় জনসংখ্যার মাত্র ১৪ শতাংশ কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন।

কানপুর ইনস্টিটিউটের এই শিক্ষকের মতে, সেরো সমীক্ষায় সংক্রমণের সঠিক হিসাব তুলে ধরা সম্ভব নয়। গাণিতিক মডেলের ওপর ভিত্তি করেই তারা একটি রিপোর্ট রবিবার কেন্দ্রের কাছে জমা দিয়েছে।

কেন্দ্রের নিয়োগ করা ১০ সদস্যের এই কমিটির নেতৃত্বে ছিলেন নীতি আয়োগের সদস্য ভিকে পাল। ভারতে করোনাভাইরাসের আঙ্কিক অগ্রগতি নিয়ে সমীক্ষার দায়িত্ব ছিল এই কমিটির।

রিপোর্টে দাবি করা হয়, আসন্ন উত্‍‌সবের দিনগুলোতে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ না করলে, সামনের এক মাসে দেশে উল্লেখযোগ্য হারে বাড়বে কভিড আক্রান্তের সংখ্যা।

কমিটির আশঙ্কা, কেবল এক মাসে নতুন কভিড পজিটিভ কেস ২৬ লাখ পর্যন্ত বাড়তে পারে।

-জেডসি