ঢাকা, রবিবার ০৯, আগস্ট ২০২০ ৫:১৮:৫২ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
ভারতে করোনাভাইরাসে নতুন আক্রান্ত ৬১৫৩৭ দেশে করোনায় আরও ৩২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১১ বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামে প্রেরণাদাতা বঙ্গমাতা: প্রধানমন্ত্রী জামালপুরে করোনা আক্রান্ত হাজার ছাড়ল ভারতে বিমান বিধ্বস্ত: ২ পাইলটসহ নিহত বেড়ে ১৮ চুয়াডাঙ্গায় বেপরোয়া বাস কেড়ে নিল ৬ প্রাণ বঙ্গমাতার ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ

করোনায় আরো একজনের মৃত্যু, আক্রান্ত বেড়ে ৩৯

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৩:৩৬ পিএম, ২৪ মার্চ ২০২০ মঙ্গলবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে দেশে আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া, নতুন করে আরো ছয়জন শনাক্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা বিভাগের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) অনলাইন লাইভ ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান তিনি। এই নিয়ে দেশে মোট চারজনের মৃত্যু ও ৩৯ জন আক্রান্ত হলেন।

সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, গত ২৪ ঘন্টায় মোট নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৯২টি। সর্বমোট আইসোলেশনে আছেন ৪০ জন। রোগী শনাক্ত হয়েছে ৩৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ছয়জন। মোট মৃত্যু চারজন। বাকি যে পাঁচজন আছেন তাদের একজন সৌদি আরব থেকে ফিরেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে করোনার বিস্তার রোধে বেশ কিছু পরামর্শ দিয়ে সেব্রিনা বলেন, সামাজিক বিচ্ছিন্নকরণের এই কার্যক্রমের সঙ্গে নিজেকে সম্পৃক্ত করুন। অত্যাবশ্যকীয় কাজ না থাকলে ঘরেই থাকুন। ২৬ তারিখের পরে যে কার্যক্রমের কথা বলা হয়েছে তা পালন করতে হবে। স্যানিটাইজার ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে সাবান পানি নিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে। অপরিষ্কার হাতে নাক মুখ স্পর্শ করবেন না। হাঁচি কাশি দিতে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। টিস্যু ব্যবহার করার পর সেটি ডাস্টবিনে ফেলুন। যথাসম্ভব ঘরে থাকুন। প্রয়োজন না হলে ঘরের বাইরে যাওয়ার দরকার নেই। গণপরিবহন এড়িয়ে চলুন। ব্যক্তিগত নিরাপত্তার জন্য মাস্ক ব্যবহার করুন। গণপরিবহন যাতে জীবাণুমুক্ত থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। যারা আক্রান্ত হয়েছেন তারা কোনভাবেই ঘরের বের হবেন না। করমর্দন-কোলাকুলি বর্জন করুন।’

সংবাদ সম্মেলনে চিকিৎসক ও নার্সদের নিরাপত্তার জন্য যথেষ্ট পিপিই রাখার চেষ্টা চলছে বলে জানান সেব্রিনা।

বাংলাদেশে ৮ মার্চ প্রথম তিনজন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়। আর ১৮ মার্চ একজনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়।দুইদিন পর ২১ মার্চ আরো এক বৃদ্ধের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক।সোমবার (২৩ মার্চ) আরও একজনের মৃত্যুর খবর জানায় আইইডিসিআর।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী আতঙ্কের মাত্রা এখন তুঙ্গে। আর তাই মহামারী আকারে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা মোকাবেলায় বিভিন্ন দেশ নিচ্ছে নানা রকম পদক্ষেপ। বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধানরা রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন এ ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায়। বিশ্বের ২০০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস।এই ভাইরাসের গতি আরও বাড়ছে বলে হুঁশিয়ার করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

বিশ্বব্যাপী করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা তিন লাখ ৬৬ হাজার ৯৫৬। এর মধ্যে ১৬ হাজার ১০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসা গ্রহণের পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন এক লাখ এক হাজার ৬৫ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। উৎপত্তিস্থল চীনে ৮০ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হলেও সেখানে ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব কমে গেছে। তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশে এই ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে। চীনের বাইরে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ১৩ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে গত ১১ মার্চ দুনিয়াজুড়ে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

-জেডসি