ঢাকা, সোমবার ১০, মে ২০২১ ১:৫২:২১ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে পারছেন না দেশে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় প্রাণহানি ৫৬ মার্কেটে মানুষের ঢল, নেই স্বাস্থ্যবিধির বালাই একটা ঈদ বাড়িতে না করলে কী হয়: প্রধানমন্ত্রী ফেরিঘাটে বিজিবি মোতায়েনের পরও ঘরমুখো মানুষের ঢল কাবুলে বিস্ফোরণে নিহত ৫৫ জনের অধিকাংশই ছাত্রী আজ মা দিবস, মাগো…ওগো দরদিনী মা

খালেদা জিয়ার জ্বর নেই, শ্বাসপ্রশ্বাস স্বাভাবিক

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১২:০৮ পিএম, ২০ এপ্রিল ২০২১ মঙ্গলবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গত ২৪ ঘণ্টা জ্বর ছিল না বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের সদস্য ডা: এ জেড এম জাহিদ হোসেন। তিনি জানান, এখন পর্যন্ত তিনি ভালো আছেন। তার শরীরে জ্বর নেই। স্বাভাবিকভাবে শ্বাস-প্রশ্বাসও নিতে পারছেন।

সোমবার রাত পৌনে ১২টায় গুলশানে বেগম জিয়ার বাসভবন থেকে বেরিয়ে তিনি একথা জানান।

ডা: জাহিদ বলেন, গতকাল আমাদের এই মেডিকেল টিমের একজন, সিদ্দিক বলেছিলেন যে আগামী ৪৮ ঘণ্টা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ আজকে ম্যাডামের ১২তম দিন শুরু হয়েছে। কাজেই এই যে ১২, ১৩ ও ১৪তম দিন এই টাইমটা হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ। করোনার জন্য সেকেন্ড সপ্তাহের লাস্ট ফেজে আমরা আছি।

জাহিদ বলেন, আলহামদুলিল্লাহ আপনাদের সকলের অবগতির জন্য দেশবাসীকে জানাতে চাই গতকাল ভোর ছয়টা থেকে আজকে রাত পৌনে ১২টা পর্যন্ত সময়ের মধ্যে উনার (বেগম খালেদা জিয়া) কোনো ধরনের জ্বর আসেনি। এটা একটা ভালো দিক। এবং এটাকে আমরা একটি ইতিবাচক দিক হিসেবে গণনা করছি। তার সেশন আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছে। বিপি ডাক্তারি ভাষায় অত্যন্ত গ্রহণযোগ্য। উনার অন্যান্য উপসর্গ সেটিও বৃদ্ধি পায়নি অথবা নতুনভাবে হয় নাই। কাজেই এই অবস্থায় আপনারা বা আমরা সবাই বলতে পারি ম্যাডামের চিকিৎসা যেভাবে চলছে তাতে তিনি স্থিতিশীল পর্যায়ে আছেন।

এ সময় এই চিকিৎসক আশা ব্যক্ত করে বলেন, এভাবে যদি আগামী দুই দিন যায় ইনশাআল্লাহ আমরা আশা করতে পারি করোনা থেকে হয়তো ভালো একটা পর্যায়ে উনি যেতে পারবেন। এবং সে জন্য দেশবাসীর কাছে আপনাদের মাধ্যমে আমরা দোয়া চাই।

জাহিদ হোসেন বলেন, করোনা আক্রান্ত আমাদের তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রুটিন চেকআপের জন্য আমি এবং মামুন আমরা দুজনে এসেছিলাম। যদিও সারাদিন আমাদের ভিজিলেন্স অর্থাৎ মনিটরিং টিম উনার স্যাচুরেশন দেখা, পালস দেখা, ব্লাড প্রেসার দেখেন। সারাদিনই কয়েক ঘণ্টা পরপর এগুলো পর্যবেক্ষণ করা হয়। এরপরও ফিজিক্যালি যে রুটিন পরীক্ষা তার জন্য আমরা আসছিলাম।

এ সময় বেগম খালেদা জিয়ার আরেক চিকিৎসক ডা: মোহাম্মদ আল মামুন ও চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান উপস্থিত ছিলেন।

-জেডসি