ঢাকা, মঙ্গলবার ২৪, নভেম্বর ২০২০ ৪:১৮:১৯ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
শহীদ বুদ্ধিজীবীদের তালিকা প্রণয়নে কমিটি গঠন মাস্ক পরা নিশ্চিতে কঠোর হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী করোনায় নতুন ২,৪১৯ রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ২৮ ঢাবি ভর্তি পরীক্ষা বিভাগীয় শহরে, নম্বর বণ্টনে পরিবর্তন করোনায় বিশ্বে মৃতের সংখ্যা প্রায় ১৪ লাখ

মাস্ক ব্যবহারে ফের মোবাইল কোর্ট চালানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৩:৫৪ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২০ সোমবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে দেশের মানুষকে রক্ষায় সবার প্রতি মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে ফের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।কোভিড-১৯ সংক্রমণের সম্ভাব্য দ্বিতীয় পর্যায় (সেকেন্ড ওয়েভ) মোকাবিলায় এই বিষয়টিতে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠকে দেশে বিরাজমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় এ নির্দেশনা দেন তিনি। গণভবন প্রান্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, মন্ত্রিসভা বৈঠকে কোভিড নিয়ে স্পেশাল আলোচনা হয়েছে। সব জায়গা থেকেই আমরা দেখছি, ইন্টারন্যাশনাল রিপোর্টিং থেকে দেখছি, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ সেইসব জায়গা থেকে আবার একটা ব্যাপক প্রাদুর্ভাব দেখা যাচ্ছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী বেশ কয়েকদিন থেকে মিটিংয়ে কথাবার্তা বলছেন। সেখানে বিশেষভাবে নজর দিচ্ছেন যে, সবাই যাতে একটু কেয়ারফুল থাকি, পার্টিকুলারলি আমাদের দিক থেকে আমরা যেন সবাই মাস্ক ব্যবহার করি।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বাকি কী হবে না হবে সেটা তো একটা আনসার্টেন বিষয়। মাস্ক যদি আমরা সবাই ব্যবহার করি, তাহলে অটোমেটিক আমাদের সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা অনেক কমে আসে। সেজন্য মানুষকে আরও বেশি করে সচেতন করতে হবে। অনেকের মধ্যে একটু রিল্যাক্স ভাব দেখা যাচ্ছে।

আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, কোনোভাবেই পাবলিক প্লেস বা মসজিদ বা অন্য গ্যাদারিংয়ে, সামনে দুর্গাপূজা আসতেছে, যেসব অনুষ্ঠানগুলো হবে কোনো অবস্থাতেই কেউ যেন মাস্ক ছাড়া না আসে। এটা আরেকটু ইনফোর্স করা হবে। প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রিসভা দৃঢ় ইচ্ছা ও আশা প্রকাশ করেছে যে, সবাই যদি মাস্ক ব্যবহারে সচেতন হয়, তাহলে অটোমেটিক্যালি এটা থেকে রিলিভ পাব।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমরা ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে বলে দিয়েছি, তারা যেন ইমামদের মাধ্যমে সব মসজিদ থেকে দিনে অন্তত জোহর ও মাগরিবের নামাজের পরে মাইক বা সামনাসামনি যখন জামাত পড়বেন, তখন বলবেন। প্রতিটি মসজিদ, বাজার, মার্কেট বা অন্যান্য গণজমায়েত যেখানে হয়, সব জায়গায় যেন স্লোগানের মতো থাকে যে মাস্ক ছাড়া কেউ প্রবেশ করবেন না। এটা সবার কাছে অনুরোধ থাকবে।

‘মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে মোবাইল কোর্টের বিষয়ে কমিশনারদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যতটুকু সম্ভব মানুষকে সচেতন করে, মোটিভেট করে বা ফোর্স করতে গেলে, আইন প্রয়োগ করতে গেলে আইনও প্রয়োগ করব,’ বলছিলেন খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

-জেডসি