ঢাকা, মঙ্গলবার ২৯, নভেম্বর ২০২২ ১৬:৩০:৪৯ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
১০ টাকায় টিকিট কেটে চক্ষু পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী নারীদের পোশাক নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে রামদেব জলবায়ু পরিবর্তনে ৭১ লাখ বাংলাদেশি বাস্তুচ্যুত: ডব্লিউএইচও বিশ্বে করোনায় আরও ৫০৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত প্রায় ৩ লাখ উরুগুয়েকে হারিয়ে নকআউটে রোনালদোর পর্তুগাল নতুন ইতিহাস গড়ে নকআউটে ব্রাজিল

অনলাইনে পণ্য বিক্রি: স্বাবলম্বী হচ্ছে কেরানীগঞ্জের মেয়েরা

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৩:৫১ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০২২ সোমবার

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

তথ্যআপার মাধ্যমে অনলাইনে পণ্য বিক্রি করে কেরানীগঞ্জে স্বাবলম্বী হচ্ছে অসংখ্য নারী উদ্যোক্তা। কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় অনেক নারী ঘরে বসে নিজেদের হাতে তৈরি করছেন নকশিকাথা, পাটেরব্যাগ, হস্তশিল্প, পুথির কাজসহ আনেক সুন্দর সুন্দর শো-পিসও ঘর গৃহস্থালী প্রয়োজনীয় পণ্য। 

কিন্তু ন্যায্য মূল্যে তাদের উৎপাদিত সেসব পণ্য বিক্রি করতে পারছিলেন না। এখন তথ্যআপার পরামশ্য ও সহযোগিতায় নারী উদ্যোক্তারা তাদের হাতে তৈরি পণ্য অনলাইনে ন্যায্য মূল্যে বিক্রি করে নিজেরা স্বাবলস্বী হচ্ছে। 

নারী উদ্যোক্তা বৈশাখী আক্তার বলেন, আমার বাসা কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা চুনকুটিয়া এলাকায়। আমি বুটিক, কারবিং পুথির গহনা ও বিভিন্ন শোপিস তৈরি করি। কিন্তু ন্যায্য মূল্যে তা বিক্রি করতে পারছিলাম না। তথ্যআপার মাধ্যমে তাদের ওয়েভ সাইডে আমার তৈরি পণ্য প্রদর্শন করায় এখন আমার তৈরি করা অনেক পণ্য বিক্রি করতে পারছি। এ ছাড়াও তথ্য মেলাসহ বিভিন্ন স্থানে আমার পণ্য কিক্রি করতে তথ্যআপা সহযোগিতা করছে।

নারী উদ্যোক্তা কল্পানা রাণী বলেন, আমি অনেক সুন্দর সুন্দর নকশি কাঁথা শেলাই করি। কিন্তু তা সঠিক দামে বিক্রি করতে না পেরে নিরাশ হয়ে পরছিলাম। তখন আমার এক বান্দবী তথ্যআপার কথা বলে। আমি তথ্যআপার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি আমার তৈরী নকশী কাঁথা তাদের ওয়েভ সাইটসহ বিভিন্ন স্থানে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেন। এখন আমি ভালো লাভে শেলাই করা নকশী কাঁথা বিক্রি করতে পারছি। 

জানা গেছে,কেরানীগঞ্জের তথ্যআপা তথ্যকেন্দ্রে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ, বিভিন্ন বিশেষজ্ঞদের মতামত গ্রহণ, প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা, উপজেলার সরকারি সেবাগুলোর সহজলভ্যতা নিশ্চিতকরণ, ভিডিও কনফারেন্স, ই-লার্নিং, ই-কমার্স ইত্যাদি কার্যক্রমের মাধ্যমে গ্রামীণ নারীদের সহায়তা করে আসছে। 

এছাড়া তথ্যআপার ল্যাপটপ ব্যবহারের মাধ্যমে প্রকল্প এলাকাধীন গ্রামবাসীর বাড়িতে গিয়ে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, আইন, ব্যবসা, জেন্ডার এবং কৃষিবিষয়ক বিভিন্ন তথ্যসেবা দিচ্ছেন। 

কেরানীগঞ্জের তথ্যকেন্দ্রের মাধ্যমে তথ্যসেবা প্রদানের পাশাপাশি সেবাগ্রহীতাদের জন্য উঠান বৈঠক আয়োজন করে গ্রামীণ তৃণমূল মহিলাদের আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে সচেতন করা হচ্ছে। প্রতিটি উঠান বৈঠকে ৫০ জন গ্রামীণ মহিলা অংশগ্রহণ করেন। গ্রামীণ মহিলাদের জীবন ও জীবিকা সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় যেমন, স্বাস্থ্যগত সমস্যা, বাল্যবিবাহ, ফতোয়া, নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা, চাকরি সংক্রান্ত তথ্য, আইনগত সমস্যা এবং ডিজিটাল সেবাগুলোর নানা দিক (ই-মেইল, ভিডিও কনফারেন্স) সম্পর্কে অবহিত করা হচ্ছে। 

কেরানীগঞ্জ উপজেলা তথ্যআপা নাজনিন নাহার সোহাগ বাসসকে বলেন, কেরানীগঞ্জে আনেক  নারী উদ্যোক্তা তাদের হাতে তৈরি   বিভিন্ন পণ্য ন্যায্য মূল্যে বিক্রি করতে পারতোনা। 
নারী উদ্যোক্তাদের  তৈরিা পণ্য আমরা আমাদের অন লাইন, তথ্যমেলাসহ বিভিন স্থানে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করে  থাকি। কেরানীগঞ্জের আনেক নারী উদ্যোক্তা এখন অনলাইনে পণ্যবিক্রি করে স্বাবলম্বী। 

এছাড়াও  আমরা বি.ডাব্লউ. বি. প্রোগ্রামের আওতায় নারীদের ফ্রি কম্পিউটার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা। দুস্থ নারীদের বিভিন্ন ভাতা প্রাপ্তির ব্যাপারে অনলাইনের মাধ্যমে আবেদনের ব্যবস্থা করাসহ নারীদের সকল ধরনের সহযোগীতার জন্য রয়েছেন তথ্যআপা।