ঢাকা, বৃহস্পতিবার ০২, ডিসেম্বর ২০২১ ৪:২০:০২ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
ভারত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত স্থগিত ব্রাজিলে করোনার নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ শনাক্ত ২৩ দেশে ছড়িয়েছে ওমিক্রন,৭০ দেশের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা কাল শুরু এক দিনে করোনায় শনাক্ত ২৮২, মৃত্যু ২

নিউইয়ার্কে ফরটি আন্ডার ফরটি জয়ী হলেন বাংলাদেশী শাহানা

আহম্মেদ মুন্নী | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০১:০৭ এএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১ মঙ্গলবার

শাহানা হানিফ।

শাহানা হানিফ।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্যের জন্য প্রতিবছরের মতো এবারও  যাদের বয়স ৪০ বছরের নিচে এমন ৪০ জন তরুণ-তরুণীকে সম্মাননা জানাল নিউইয়র্ক সিটি অ্যান্ড স্টেট। এই ৪০ জনের মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশি হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন শাহানা হানিফ। তিনি এর আগে ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায়ও স্থান পেয়েছিলেন। 

শাহানা হানিফ সম্পর্কে সিটি অ্যান্ড স্টেটের তালিকায় লেখা হয়েছে, বাংলাদেশি ইমিগ্র্যান্টের কন্যা শাহানা হানিফ একজন কমিউনিটি অর্গানাইজার। এ বছরের জুন মাসে নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিল ডিসট্রিক্ট ৩৯ থেকে ডেমোক্রেটিক প্রাইমারিতে নির্বাচিত হয়ে ইতিহাস তৈরি করেছেন তিনি। আসন্ন ২ নভেম্বর সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে নির্বাচিত হলে তিনিই হবেন প্রথম মুসলিম নারী। তার ডিসট্রিক্টেও তিনি প্রথম নারী ও ‘পিপল অব কালার’ হিসেবে নির্বাচিত হবেন । 

এ ব্যাপারে শাহানা হানিফ বলেন, আমার মনে পড়ছে আজ থেকে ২০ বছর আগে ২০০১ সালে ৯/১১ এর পর একজন আমােক উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন, তুমি একদিন নির্বাচিত প্রতিনিধি হবে। আমি বিশ্বাস করিনি তা যে মাত্র দুই দশকের মধ্যে সম্ভব হবে। 

টিনেন্ট অর্গানাইজার, ডিজঅ্যাবিলিটি রাইটস এক্টিভিস্ট এবং ডমিস্টিক ভায়োলেন্সের বিরুদ্ধে সোচ্চার শাহানা হানিফ একই ডিসট্রিক্ট কাউন্সিলম্যান ব্র্যাড ল্যান্ডারের অফিসে কমিউনিটি অ্যানগেজমেন্টের পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন। এ অভিজ্ঞতাই তৃণমূল পর্যায়ে কাজ করতে সহায়ক হয়েছে।

শাহানা হানিফ বলেন, আমার কর্মক্ষেত্রে ও আমার কমিউনিটি ছাড়িয়ে আমার ডিস্ট্রিক তো বটেই, নিউইয়র্ক নগরীতে যারা নানা পর্যায়ে সুবিধাবঞ্চিত তাদের পাশে দাঁড়ানো এবং তাদের জন্য কাজ করা আমার একমাত্র উদ্দেশ্য। তবে আমার কমিউনিটি আমার কাছে সবার আগে। আমি সম্পূর্ণভাবেই তাদের জন্য নিজেকে নিবেদিত করব। 

‘ফোরটি আন্ডার ফোরটি’ সম্মাননা যারা পেয়েছেন তারা নিউইয়র্ক সিটির গভর্নমেন্টে কর্মরত, কিংবা রাজনীতি অথবা আইনপেশার বিভিন্ন গ্রুপের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। এসব উদীয়মান তারকারা ইতোমধ্যে তাদের কর্মের মধ্য দিয়ে নিজেদের প্রতিভার ও সক্ষমতার প্রমাণ রেখেছেন। নিউইয়র্ক সিটি অ্যান্ড স্টেট জানিয়েছে, ৪০ জনকে বেছে নেওয়ার লক্ষ্যে পাঁচশ জনেরও বেশি তরুণ-তরুণী মনোনয়ন পেয়েছিলেন। 

গত ১১ অক্টোবর (সোমবার) এই ‘ফোরটি আন্ডার ফোরটি’ তালিকা প্রকাশিত হয়।