ঢাকা, রবিবার ২৬, মে ২০২৪ ২০:৩১:৫৮ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
৮ লাখের বেশি মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে এসেছেন যেসব জেলায় ১২ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা ঘূর্ণিঝড় রেমাল: দুই সমুদ্রবন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দুপুরে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০ নির্দেশনা ঘূর্ণিঝড় রেমাল: ১০ ফুট জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা ১৮ জেলায় আঘাত হানতে পারে রেমাল: দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী

নোয়াখালীতে জমে উঠেছে সাহিত্য ও বই মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০১:১৪ পিএম, ২৮ জুলাই ২০২৩ শুক্রবার

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে শুরু হয়েছে দুইদিন ব্যাপী সাহিত্য ও বই মেলা। বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) সকালে এই বই মেলার উদ্বোধন করেন নোয়াখালীর সাংসদ এইচ এম ইব্রাহীম। প্রথম দিন মেলায় দর্শনার্থী ও ক্রেতা সমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো।

জানা গেছে, সোনাইমুড়ী উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বৃহস্পতিবার সকালে মেলাটি উদ্বোধন করেন নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম। ২৫টি স্টলে নোয়াখালী জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আগত নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে বিভিন্ন লেখক-পাঠকদের মিলনমেলায় পরিণত হয় সোনাইমুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ। বিভিন্ন বয়সী লেখকদের নানারকম বই ছিল স্টলগুলোতে। ছোটদের জন্য ছড়া, কার্টুন গল্প, ছোট গল্প, বড়দের জন্য বিখ্যাত সাহিত্যিকদের বই, কবিতা, প্রবন্ধ, গল্প, উপন্যাসসহ হরেক রকমের বই ছিল স্টলগুলোতে।


মেলায় ঘুরতে আসা মাইনুল ইসলাম অপু নামের এক শিক্ষার্থী ঢাকা পোস্টকে বলেন, বইমেলা দেখার খুব ইচ্ছে ছিল। এই অঞ্চলের অসংখ্য লেখক রয়েছে মেলা না হলে তাদের সঙ্গে পরিচয় হতো না। যাদের বই কিনেছি তাদের সরাসরি দেখতে পেয়েছি, অটোগ্রাফ নিয়েছি।


মেলায় ঘুরতে আসা আলমগীর কবীর বলেন, সারাদেশের লেখকের বই মিলছে এই মেলায়। আকর্ষণীয় লেগেছে আমাদের নোয়াখালীর লেখকদের বই। এছাড়াও মেলায় বাহারি রকমের পিঠার স্টল রয়েছে। সব কিছু মিলে বেশ ভালো লাগছে।

আদর্শ গ্রন্থাগারের স্বত্বাধিকারী তোফায়েল আহমেদ  বলেন, গতকাল বিকেলে ক্রেতার চাপ ছিল।  শুক্রবার ছুটির দিনে আশাকরি ভালো বই বিক্রি হবে। কর্তৃপক্ষ আগামীতে এ মেলা আরও জাঁকজমকভাবে আয়োজন করবে বলে আশা করি।

সোনাইমুড়ী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ইসমাইল হোসেন বলেন, বাংলা একাডেমির সমন্বয়ে, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের সহযোগিতায় ও সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় সোনাইমুড়ী উপজেলা প্রশাসন এ মেলার আয়োজন করে। আজ ছুটির দিন হওয়ায় মেলায় লোক সমাগম অনেক বেশি হবে। আশা করি সবাই শৃঙ্খলার সঙ্গে মেলার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখবেন।


নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিমবলেন, লেখক, পাঠকের সমন্বয়ে মেলাটি প্রাণ পেয়েছে। অনেক শিক্ষার্থী মেলার আয়োজন দেখে অভিভূত হয়েছে। তাদের মাঝে নতুন প্রাণ সঞ্চার হয়েছে। এতে করে নতুন নতুন লেখক তৈরি হবে। সৃষ্টিশীল মানুষের মাধ্যমে আমাদের সমাজে পরিবর্তনের ছোঁয়া লাগবে। 

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) অজিত দেবের সভাপতিত্বে ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এমরান হোসেনের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সোনাইমুড়ী পৌরসভা মেয়র ভিপি নুরুল হক চৌধুরী, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিন মিয়া, সোনাইমুড়ী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ.ফ.ম বাবুল বাবু, উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা আক্তার পারুল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। 

এ সময় সোনাইমুড়ী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. নাজিম উদ্দিন, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আহসান হাবিব, কবি ও সাহিত্যিক ফারুক আল ফয়সাল, কবি ও সাহিত্যিক মো. মশিউর রহমান, প্রাবন্ধিক নুুরুল আমিন বাবলু, লেখক ও গবেষক এ এস এম ইউনুছ, কবি ও কথাসাহিত্যিক প্রত্যয় জসিম, সাহিত্যিক, কলামিষ্ট ও প্রাবন্ধিক রহিমা আক্তার মৌ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।