ঢাকা, মঙ্গলবার ১৫, জুন ২০২১ ০:১৭:২৮ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় ৫৪ জনের মৃত্যু মাত্র ৫০০ টাকার জন্য স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা! করোনায় যশোরে নতুন আক্রান্ত ৯০, মৃত্যু ৩ রাজশাহীতে করোনায় আরও ১২ জনের মৃত্যু সারাদেশে তিন দিন গ্যাস সংকট থাকবে পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টাকারী নাসির-অমিসহ আটক ৫

ভয়েস অব আমেরিকা থেকে অবসর নিলেন সাংবাদিক রোকেয়া হায়দার

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:৪৩ পিএম, ২৯ মে ২০২১ শনিবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধানের পদ থেকে অবসর নিলেন সাংবাদিক রোকেয়া হায়দার। ২৮ মে শুক্রবার তিনি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমটি থেকে অবসর নেন।

রোকেয়া হায়দার ভয়েস অব আমেরিকার মতো আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের বাংলা বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন প্রায় দুই যুগ। পাশাপাশি তিনি রোহিঙ্গা ভাষার অনুষ্ঠানও চালু করেন।

অত্যন্ত মেধাবী নারী সাংবাদিকদের একজন রোকেয়া হায়দার। নিজের মেধা, প্রজ্ঞা, বিচক্ষণতা, যোগ্যতা ও পেশার প্রতি দায়িত্বশীল আচরণে ছিলেন সবার জন্য দৃষ্টান্ত। বাঙালি নারীর ঐতিহ্যের পোশাক শাড়ি পরে সাংবাদিকতা করে এক অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করে গেছেন তিনি।

রোকেয়া হায়দারের শেকড়ভূমি যশোর। তবে বাবার কর্মসূত্রে তার জন্ম ও বেড়ে ওঠা কলকাতায়। বাবা আবু বকর ফারাজী ও মা মেহেরুন্নেসা বাকারের ছয় সন্তানের মধ্যে তিনি তৃতীয়। বড় বোন সুফিয়া আমিন প্রখ্যাত নজরুল সংগীত শিল্পী ছিলেন।

১৯৬৮ সালে চট্টগ্রাম বেতারে আঞ্চলিক সংবাদ পাঠ দিয়ে শুরু হয় তার সংবাদ উপস্থাপনার জীবন। তবে পেশাদার সাংবাদিকতার শুরু ১৯৭৪ সালে ঢাকা বেতার ও টিভির নিয়মিত খবর পড়ার মধ্য দিয়ে। স্পষ্ট উচ্চারণ, বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর ও আত্মপ্রত্যয়ী মনোভাবের কারণে অল্প দিনের মধ্যেই রোকেয়া হায়দার খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছে যান। বাংলাদেশে যখন টিভি আসেনি তখন সবার কাছে ভয়েস অব আমেরিকা বেতারের অনুষ্ঠান ছিল দারুণ জনপ্রিয়।

১৯৮১ সালে বিশ্বখ্যাত ভয়েস অব আমেরিকার আমন্ত্রণে চলে যান ওয়াশিংটন ডিসিতে। পুরো খবর পড়াই নয়, পুরোদস্তুর সাংবাদিকতার দায়িত্ব নিতে হয় তাকে। রোকেয়া হায়দার ভিওএ বাংলা বিভাগের ম্যানেজিং এডিটরের দায়িত্ব লাভ করেন। ২০১১ সালের জুন মাস থেকে রোকেয়া হায়দার বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক মাল্টিমিডিয়া প্রতিষ্ঠানের বাংলা বিভাগে তিনিই প্রথম নারী প্রধান। রোকেয়া হায়দারের ভয়েস অব বাংলা বিভাগ তার নেতৃত্বে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অনুষ্ঠানের প্রসার ও প্রচারের ক্ষেত্রে বিরাট ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে।

-জেডসি