ঢাকা, সোমবার ১৪, জুন ২০২১ ২৩:১৮:২০ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় ৫৪ জনের মৃত্যু মাত্র ৫০০ টাকার জন্য স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা! করোনায় যশোরে নতুন আক্রান্ত ৯০, মৃত্যু ৩ রাজশাহীতে করোনায় আরও ১২ জনের মৃত্যু সারাদেশে তিন দিন গ্যাস সংকট থাকবে পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টাকারী নাসির-অমিসহ আটক ৫

রোজিনার ফেসবুক আইডি হ্যাক, স্ট্যাটাসে দায় নেবে না পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:১৭ পিএম, ২৬ মে ২০২১ বুধবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের বন্ধ (ডি-অ্যাকটিভেড) করে রাখা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সেটিতে রোজিনা ইসলাম আর প্রবেশ করতে পারছেন না। তাই রোজিনা ইসলামের ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট থেকে কোনো স্ট্যাটাস আসলে তিনি বা তার পরিবার এর দায়-দায়িত্ব নেবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন রোজিনা ইসলামের স্বামী মনিরুল ইসলাম মিঠু। কে বা কারা তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকড করেছে তা এখনও জানা যায়নি।

আজ বুধবার (২৬ মে) সকালে মনিরুল ইসলাম মিঠু এমন তথ্য জানিয়ে বলেন, গত ১৭ মে রোজিনা কোনো একটি কারণে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিষ্ক্রিয় (ডি-অ্যাকটিভেড) করেছিলেন। কিন্তু সোমবার (২৪ মে) রাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হঠাৎ দেখতে পান তার ফেসবুক চালু। তিনি জিমেইল অ্যাকাউন্টেও ঢুকতে পারছেন না।

পরিবার আশঙ্কা করছে, কেউ অসৎ উদ্দেশ্যে রোজিনা ইসলামের ফেসবুক আইডি ও জিমেইল আইডি অবৈধভাবে নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। তাই এই বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে গত ২৫ মে রাজধানীর শাহজাহানপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি) করা হয়েছে।

মনিরুল ইসলাম মিঠু আরও বলেন, এখন আমাদের সন্দেহ হচ্ছে যারা এই ফেসবুক ও জিমেইল অ্যাকাউন্ট নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে, তারা মিথ্যা যেকোনো ধরনের মেইল বা স্ট্যাটাস দিতে পারে। তবে এসব স্ট্যাটাস বা মেইলের দায়িত্ব আমরা নেব না। কারণ ওই ফেসবুক ও জিমেইল অ্যাকাউন্টে এখন আর রোজিনা ইসলামের দায়িত্ব নেই।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোজিনা ইসলাম এখন কেমন আছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার শারীরিক সমস্যাগুলোর নিয়মিত চিকিৎসা চলছে। তবে সে মানসিকভাবে খুব অসুস্থ। এখনও স্কয়ার হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন আছেন।

জিডির বিষয়ে শাহজাহানপুর থানার ডিউটি অফিসার আব্দুর রউফ বলেন, গতকাল রোজিনা ইসলামের স্বামী জিডি করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

গত ১৭ মে কারামুক্ত রোজিনা ইসলাম পেশাগত দায়িত্ব পালনে সচিবালয়ে গেলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা তাকে প্রায় ৬ ঘণ্টা আটকে রাখেন এবং নির্যাতন চালান। তখন তার মোবাইলও কেড়ে নেন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। পরে রোজিনাকে শাহবাগ থানা-পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে তার বিরুদ্ধে অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট ও দণ্ডবিধিতে মামলা করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ওই মামলায় রোজিনার মোবাইল জব্দ দেখানো হয়। ৫ দিন কারাবাসের পর রোজিনা ইসলাম গত রোববার জামিনে মুক্ত হন। এরপর তাকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন আছেন। অন্যদিকে রোজিনার জব্দকৃত মোবাইল ফোন সিআইডি’র ফরেনসিক ল্যাবে পরীক্ষা নীরিক্ষা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।


-জেডসি