ঢাকা, শনিবার ০৬, জুন ২০২০ ০:৪৬:১৩ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে করোনা ইউনিট উদ্বোধন কাল পাবনায় স্বামী-স্ত্রী ও মেয়ের লাশ উদ্ধার দেশে করোনায় মৃত্যু ৮০০ ছাড়াল, আক্রান্ত ৬০ হাজারের বেশি ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি, নারী গ্রেপ্তার যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১,০২১ দ. আফ্রিকায় একদিনে ৩ হাজার ২৬৭ জন করোনা আক্রান্ত

শরীয়তপুরে আইসোলেশনে থাকা একজনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১১:২৯ এএম, ১ এপ্রিল ২০২০ বুধবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সন্দেহে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে আইসোলেশনে ভর্তি হওয়া ৩৪ বছরের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে তিনি মারা যান

ওই যুবক নড়িয়া উপজেলার মোক্তারের চর ইউনিয়নের নয় নম্বর ওয়ার্ডের একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। তিনি শ্রমিকের কাজ করতেন।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলেন,  শ্বাসকষ্ট, জ্বর ও কাশি থাকায় ওই যুবককে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। পরে রাত নয়টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে ১৯ মার্চ কাশি নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। পরীক্ষায় তার যক্ষ্মা ধরা পড়ায় তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়। চিকিৎসা শেষে ২৩ মার্চ তিনি সদর হাসপাতাল থেকে বাড়িতে চলে যান।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মুনির আহমেদ খান বলেন, নড়িয়া এলাকার ওই বাসিন্দা শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে আসেন। শারীরিক অবস্থা খারাপ ছিল তার। শ্বাসকষ্ট থাকায় তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল। চিকিৎসা দেয়া অবস্থায় তিনি মারা যান।

শরীয়তপুরের সিভিল সার্জন ডা. এস.এম. আবদুল্লাহ আল মুরাদ বলেন, ওই ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হবে। আইইডিসিআর থেকে ফলাফল পেতে দুই দিন সময় লাগতে পারে। তার পরিবার যে জায়গায় দাফন করতে চায়, স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে সেখানেই ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মীরা মরদেহ দাফন করে আসবেন।

এদিকে, ওই ব্যক্তির আশেপাশের পাঁচটি পরিবারকে লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন।

এ ব্যাপারে নড়িয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সাইফুল ইসলাম জানান, ওই যুবক নড়িয়া উপজেলার মোক্তারের চর ইউনিয়নের নয় নম্বর ওয়ার্ডের একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। তিনি একজন শ্রমিক। তিনি দীর্ঘদিন যাবত যক্ষ্মা রোগে ভুগছিলেন। বর্তমান পরিস্থিতি চিন্তা করে তার বাসার আশেপাশের পাঁচটি পরিবারকে  লকডাউন করা হয়েছে।

-জেডসি