ঢাকা, রবিবার ০৫, জুলাই ২০২০ ৩:৫২:৩৩ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
দেশে করোনায় মোট মৃত্যু প্রায় ২ হাজার করোনা: ২১ দিনের লকডাউনে গেল ওয়ারী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বিমানের সিঙ্গাপুর-মালয়েশিয়া ফ্লাইট স্থগিত ১৪ দিনের লকডাউনে গেল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বিএসএমএমইউতে আজ চালু হচ্ছে করোনা সেন্টার

করোনা: ডেক্সামেথাসোন ব্যবহারের অনুমোদন দিলো ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১২:৫৮ পিএম, ২৯ জুন ২০২০ সোমবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট

মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় স্টেরয়েড ডেক্সামেথাসোন ব্যবহারে ছাড়পত্র দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এ ক্ষেত্রে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, মাঝারি ও বেশি মাত্রায় অসুস্থদের ক্ষেত্রে তুলনায় কম খরচের এ স্টেরয়েড ব্যবহার করা যাবে। এতদিন আর্থরাইটিসের মতো রোগের ক্ষেত্রে যন্ত্রণা উপশমের জন্য ডেক্সামেথাসোন ব্যবহার করা হতো। এছাড়া ক্যানসারে আক্রান্তদেরও ডেক্সামেথাসোন দেয়া হয়ে থাকে। এবার সে ডেক্সামেথাসোন প্রয়োগ করা হবে করোনায় আক্রান্তদের ওপর। সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে।

এদিকে অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ রেমডেসিভিরের ভারতীয় সংস্করণ ‘কোভিফর’ এরইমধ্যে ভারতের কয়েকটি রাজ্যে পৌঁছেছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে এ ওষুধ কলকাতায় আসার কথা। রেমডেসিভিরের পর এবার ডেক্সামেথাসোন ব্যবহারের সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে, এ দুটি ওষুধের কোনোটিই সরাসরি করোনার ওষুধ নয়। দুটি ওষুধই আক্রান্তদের ওপর প্রয়োগ করে আশাব্যঞ্জক ফল মিলেছে মাত্র। যেমন, যুক্তরাজ্যের ১৭৫টি হাসপাতালে সাড়ে ১১ হাজার রোগীর ওপর ডেক্সামেথাসোন প্রয়োগের গবেষণা চালিয়ে বেশ সাফল্যের মুখে দেখেছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। এতে অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও। দেখা গেছে, অনেক কোভিড-১৯ রোগীর ক্ষেত্রে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার অতিসক্রিয়তাও মৃত্যুর কারণ হয়েছে। এসব ক্ষেত্রে ‘ইমিউনো সাপ্রেসিভ’ হিসেবে কাজ করবে ডেক্সামেথাসোন। অক্সফোর্ডের গবেষণায় ২৮ দিনে ১৭ শতাংশ মৃত্যুহার কমাতে পেরেছে এ স্টেরয়েড।

এদিকে রোববার আগের সব রেকর্ড ভেঙে দিল করোনা সংক্রমণের পরিসংখ্যান। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ হাজার ৯০৬ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ২৮ হাজার ৮৫৯ জন। একদিনে ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪১০ জন। এতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৯৫ জন। সংক্রমণের নিরিখে বিশ্বে ভারত এখন চতুর্থ স্থানে।

-জেডসি