ঢাকা, মঙ্গলবার ২৪, নভেম্বর ২০২০ ২১:১২:৩৮ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
দেশে করোনা শনাক্ত রোগী সাড়ে ৪ লাখ ছাড়াল বিবিসির বর্ষসেরা ১০০ নারী ব্যক্তিত্বের তালিকায় রিনা ও রিমা স্কুলে ভর্তির বিষয়ে কাল শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন শেখ হাসিনা-মোদির ভার্চুয়াল বৈঠক ডিসেম্বরে বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ছাড়াল ১৪ লাখ

বড়দিনের আগেই বাজারে করোনার টিকা: ফাইজার

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:১৬ পিএম, ১৯ নভেম্বর ২০২০ বৃহস্পতিবার

বড়দিনের আগেই বাজারে করোনার টিকা: ফাইজার

বড়দিনের আগেই বাজারে করোনার টিকা: ফাইজার

আমেরিকায় ওষুধ নির্মাতা সংস্থা ফাইজারের করোনা টিকা বড়দিনের আগেই বাজারে আসতে পারে। ফাইজারের সহযোগী সংস্থা বায়োএনটেকের কর্ণধার উগুর শাহিন এ তথ্য জানিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার উগুর শাহিন বলেন, সব কিছু ঠিক মতোই এগোচ্ছে। আশা করছি ডিসেম্বরের গোড়াতেই আমরা করোনা টিকা উৎপাদনের ছাড়পত্র পেয়ে যাব। ক্রিসমাসের আগেই এই টিকা বাজারে আনতে পারব।

জার্মান সংস্থা বায়োএনটেক-এর সঙ্গে হাত মিলিয়ে এমআরএনএ প্রযুক্তির সাহায্যে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন তৈরি করেছে ফাইজার।

বুধবার ফাইজার কর্তপক্ষ জানিয়েছিলেন, মানবদেহে তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষায় ৯৫ শতাংশ সাফল্য পেয়েছে তাদের করোনা টিকা।

উগুর বলেন, আমাদের তৈরি টিকায় কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ধরা পড়েনি। বয়স এবং অবস্থান ভেদে টিকার কার্যকারিতার কোনও তারতম্য হয়নি।

প্রসঙ্গত, বিশ্বের ৬টি দেশের প্রায় ৫০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের উপর ফাইজার-বায়োএনটেক করোনা টিকার পরীক্ষা হয়েছে। সাম্প্রতিক একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল, কয়েকটি ক্ষেত্রে টিকার প্রথম ডোজ প্রয়োগের পরেই মাথাব্যথা, জ্বর, পেশিতে যন্ত্রণা-সহ একাধিক উপসর্গ দেখা গেছে। পাশাপাশি, করোনার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ক্ষমতা দিলেও কতদিন টিকার কার্যকারিতা থাকবে তা এখনও স্পষ্ট নয়।

ফাইজার কর্তৃপক্ষ অবশ্য বুধবার জানিয়েছেন, হিউম্যান ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তৃতীয় পর্যায়ের চূড়ান্ত ফলাফল বিশ্লেষণের রিপোর্ট আমেরিকার ‘ফুড ড্রাগ অ্যান্ড সেফটি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’-এর কাছে পেশ করে টিকা উৎপাদনের অনুমতি চাওয়া হবে বলে।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের গোড়াতেই মানবদেহে তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার অন্তর্বর্তী রিপোর্টে ৯০ শতাংশ সাফল্য মিলেছে বলে জানিয়েছিল আমেরিকার সংস্থাটি।

ফাইজারের চেয়ারম্যান অ্যালবার্টা বুর্লাও বলেন, মহামারির চরম পর্যায়ে আমাদের তৈরি প্রতিষেধক নতুন মাইল ফলক ছুঁয়েছে। বিজ্ঞান এবং মানবজাতির জন্য এটি বিরাট সুখবর।


এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মাইকেল রায়ান বলেন, করোনা টিকাকে ম্যাজিক সমাধান বলে ভেবে নেওয়া অনুচিত হবে। আমাদের ভাবতে হবে টিকার সাহায্য ছাড়াই করোনাভাইরাস মোকাবিলা করার কথা।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা