ঢাকা, বুধবার ১২, আগস্ট ২০২০ ১:১৩:৪২ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
রাশিয়ায় করোনা টিকার অনুমোদন, প্রথম টিকা নিলেন পুতিনকন্যা দেশে করোনায় আরো ৩৩ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৯৯৬ দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে টানা সপ্তম দিন দৈনিক করোনা সংক্রমণে শীর্ষে ভারত বাতিল হচ্ছে পিইসি-জেএসসি পরীক্ষা

মালয়েশিয়ায় করোনার নতুন ক্লাস্টার জোন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১১:৩৩ এএম, ২৫ জুন ২০২০ বৃহস্পতিবার

ছবি: ইন্টারনেট

ছবি: ইন্টারনেট

মালয়েশিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের নতুন করে আরও তিনটি ক্লাস্টার শনাক্ত করা হয়েছে। গত ৯ জুন কন্ডিশনাল মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (সিএমসিও) প্রত্যাহারের পর বাংলাদেশীদের আবাসস্থল থেকে এই প্রথম ক্লাস্টারগুলো শনাক্ত করা হলো।

শনাক্ত হওয়া ক্লাস্টারগুলো হল, কুয়ালালামপুরের বুকিত বিনতাং, সেলাঙ্গরের হুলু লাঙ্গাতের একটি কনডমিনিয়াম ও সারওয়াকের কুচিংয়ের একটি নির্মাণ সাইট।

এসময় কুয়ালালামপুরের বুকিত বিনতাংয়ের ক্লাস্টারে করোনায় আক্রান্ত ১০ জনের মধ্যে ৯ জনই বাংলাদেশী এবং অন্য একজন স্থানীয় নাগরিক রয়েছে বলে জানানো হয়।

স্থানীয় সময় বুধবার (২৪ জুন) বিকালে করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক ডা. নূর হিশাম আবদুল্লাহ।

তিনি জানান, নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার ঘটনাকে মালয়েশিয়ায় লকডাউন শিথিলের ক্ষেত্রে সতর্ক বার্তা হিসেবে মনে করা হচ্ছে। এমন সময় এই নতুন নতুন ক্লাস্টার পাওয়া যাচ্ছে যখন মালয়েশিয়া অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড পুনরায় সচল হতে শুরু করেছে এবং মানুষ কাজে ফিরতে শুরু করেছেন।

তিনি আরও জানান, এবারের নতুন শনাক্ত হওয়াদের কোনও লক্ষণ ছিল না। এর আগে করোনা পজিটিভিদের যে ধরনের লক্ষণ বা উপসর্গ ছিল যেমন, জ্বর বা কাশি ছিল না। কারণ স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের পরীক্ষায় পজিটিভ আসার পরই তাদের কথা জানা যায়। সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের চিহ্নিত ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

তবে তিনি আশা প্রকাশ করেন, আমরা যদি সবাই কোভিড -১৯ রোগীদের অন্যের সাথে মিশ্রণ রোধ করতে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতিগুলির (এসওপি)  অনুসরণ করি সম্ভবত আমরা আগামি একমাসের মধ্যে শূন্যের কোটায় পৌঁছাতে পারবো এবং এটি আমাদের উদ্দেশ্য।

এদিকে, দেশটিতে বুধবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৫৯৬ জন। মারা গেছে ১২১ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন ৮ হাজার ২৩১ জন।

উল্লেখ্য, ১০ জুন থেকে চলমান রিকভারি মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (আরএমসিও) নামের এ লকডাউন আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত রাখার ঘোষণায় অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে চলছিল মালয়েশিয়ার জনজীবন।

-জেডসি