ঢাকা, শুক্রবার ১৪, জুন ২০২৪ ১১:৫৫:৩২ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
ঈদযাত্রায় ঘরমুখো মানুষের ভোগান্তি ঈদযাত্রায় বাস টার্মিনালে উপচে পড়া ভিড় যে কারণে ছুটির দিনেও ব্যাংক খোলা আজ ফের দি‌ল্লি সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু যুদ্ধের কারণে ১২ কোটি মানুষ ঘরছাড়া: জাতিসংঘ

মে মাসে ধর্ষণের শিকার ৬২ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৯:৫৩ এএম, ৩ জুন ২০২৪ সোমবার

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

সদ্য শেষ হওয়া মে মাসে সারাদেশে ২৪৩ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৬২ জন। এমন তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

রোববার (২ জুন) সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের মে মাসে নারী ও কন্যাশিশুসহ মোট ২৪৩ জন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৪০ কন্যাসহ ৬২ জন। তার মধ্যে ১২ কন্যাসহ ২০ জন হয়েছে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার। ২ কন্যাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। ১ জন ধর্ষণের কারণে আত্মহত্যা করেছে এবং ৩ কন্যাসহ ৭ জনকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে ২২ কন্যাসহ ২৩ জন। উত্ত্যক্তকরণের শিকার হয়েছে ৬ কন্যাসহ ৭ জন। এর মধ্যে ১ কন্যা উত্ত্যক্তকরণের কারণে আত্মহত্যাও করেছে।

প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, এই সময়ে নারী ও কন্যা পাচারের ঘটনা ঘটেছে ২টি। অগ্নিদগ্ধের শিকার হয়েছে ২ জন, এর মধ্যে ১ জনের অগ্নিদগ্ধের কারণে মৃত্যু হয়েছে। যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৫ জন, এর মধ্যে ২ জনকে যৌতুকের কারণে হত্যা করা হয়েছে। শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১১ জন, এরমধ্যে ২ জন কন্যা। পারিবারিক সহিংতায় শারীরিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ৩টি। ১ কন্যা গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বিভিন্ন কারণে ৭ কন্যাসহ ৪৬ জনকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়াও ৪ জনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। ৩ কন্যাসহ ২২ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ৫ কন্যাসহ ২০ জনের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে ১ কন্যা আত্মহত্যার প্ররোচনার শিকার হয়েছে। ৩ কন্যাসহ ৪ জন অপহরণের শিকার এবং ১ কন্যাকে অপহরণের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। ৩ কন্যাসহ ৪ জন সাইবার ক্রাইমের শিকার হয়েছে। বাল্যবিবাহের ঘটনা ঘটেছে ২টি। বাল্যবিবাহের ঘটনা প্রতিরোধ করা হয়েছে ৫টি।

এ ছাড়া ৫ কন্যাসহ ১২ জন নারী বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়।

প্রসঙ্গত, দেশের বহুল প্রচারিত ১৩টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা বিশ্লেষণের মাধ্যমে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের লিগ্যাল এইড উপ-পরিষদ প্রতি মাসে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে।