ঢাকা, বুধবার ২৭, জানুয়ারি ২০২১ ১৫:০৮:১৯ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিলেন কমলা হ্যারিস করোনাতাণ্ডবে বিশ্বে মৃত্যু ২১ লাখ ৬৫ হাজার ছাড়িয়েছে বাইডেন প্রশাসনে আরেক বাংলাদেশী নারী করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু হচ্ছে আজ মেক্সিকোতে করোনায় মৃতের সংখ্যা দেড় লাখ ছাড়িয়েছে

কৃষক আন্দোলন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যে কঙ্গনাকে আইনি নোটিস

বিনোদন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৪:৩২ পিএম, ৪ ডিসেম্বর ২০২০ শুক্রবার

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত।  ফাইল ছবি।

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। ফাইল ছবি।

কৃষক আন্দোলন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছে দিল্লি শিখ গুরুদ্বার ম্যানেজমেন্ট কমিটি।

তাদের দাবি, ‘কৃষকদের মা’ হিসেবে পরিচিত ‘শাহিনবাগ দাদি’কে নিয়ে যে কুরুচিকর মন্তব্য করেছেন কঙ্গনা। এ জন্য নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে তাকে। একজন প্রবীণকে এ ভাবে হেয় করার অধিকার তার নেই।

অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে কেন এই আইনি পদক্ষেপ? কমিটির যুক্তি, কঙ্গনা যদি তার বাংলো ভাঙা নিয়ে মুম্বই কর্পোরেশনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমর্থন চাইতে পারেন তাহলে দেশের কৃষকদেরও অধিকার আছে নয়া কৃষি বিল নিয়ে সংবিধান মেনে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করার। সেই প্রতিবাদকে, দেশের কৃষকদের কঙ্গনা এ ভাবে অবমাননা করতে পারেন না।

প্রসঙ্গত, গত ২৭সেপ্টেম্বর ভারতে নয়া কৃষি আইন পাশ হওয়ার পরেই এ আইন বাতিলের দাবিতে ‘দিল্লি চলো’ আন্দোলন শুরু হয়েছে। পঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকদের স্লোগানে এখন রাজধানীর চরদিকে। কৃষি আইনের বিরুদ্ধে সারা দেশজুড়ে পথে নেমেছেন কৃষকেরা। তখনই এই প্রতিবাদকে ‘দেশদ্রোহিতা’ বলে মন্তব্য ছুঁড়ে দেন কঙ্গনা। শুধু এটুকুই নয়। সাম্প্রতিক টুইটে এই অভিনেত্রী আক্রমণ করতে ছাড়েননি শাহিনবাগ খ্যাত ৮২ বছরের বিলকিস বেগমকেও।

তিনি বলেছেন, বিলকিস এই আন্দোলনেও হাঁটছেন! ১০০ টাকার বিনিময়ে নাকি বিভিন্ন প্রতিবাদে এদের রাস্তায় নামানো হচ্ছে। টুইটে এই অভিনেত্রী লেখেন, ‘লজ্জা...কৃষকের নামে যে যার আখের গোছাচ্ছে। আশা করি, দেশদ্রোহীরা যাতে সুযোগ নিতে না পারে, সে দিকে খেয়াল রাখবে আমাদের সরকার। তার ফলে শাহিনবাগের মতো আরও একটা হিংসার সূত্রপাত ঘটবে না আশা করি। রক্তলোভীদের দল ও টুকরে গ্যাংকে তাদের স্বার্থসিদ্ধি করা থেকে আটকানো উচিত।’

ডিএসজিএমসি-র পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে আরও দাবি করা হয়েছে, পরিস্থিতি বিচার করে সরকার যেন অতি দ্রুত কঙ্গনার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করে।