ঢাকা, রবিবার ২৯, মার্চ ২০২০ ৩:১৫:২৭ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
নতুন করোনারোগী শনাক্ত হয়নি; আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ চারজন মাস্ক না পরায় তিন বৃদ্ধকে কান ধরানো সেই এসিল্যান্ড প্রত্যাহার মিরপুরে বাসায় আগুন, নারী-শিশুসহ নিহত ৩ করোনায় বিশ্বজুড়ে মৃত্যু ২৭৩৫২, আক্রান্ত প্রায় ৬ লাখ ইতালিতে ২৪ ঘন্টায় রেকর্ড সংখ্যক মৃত্যু

ঢাকার বাতাসের মান ‘অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর’

অনলাইন ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০১:১০ পিএম, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ সোমবার

বিশ্বের দূষিত বাতাসের শহরের তালিকায় রোববার সকালে দ্বিতীয় খারাপ অবস্থানে ছিল বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা। সকাল ৮টা ১৯ মিনিটে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে (একিউআই) ঢাকার স্কোর ছিল ২৬৩, যার অর্থ হচ্ছে এ শহরের বাতাসের মান ‘অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর।’

মঙ্গোলিয়ার উলানবাটর ও ভারতের কলকাতা যথাক্রমে ৩৫৯ ও ২২৩ একিউআই স্কোর নিয়ে প্রথম ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে।

একিউআই মান ২০১ থেকে ৩০০ হলে স্বাস্থ্য সতর্কতাসহ তা জরুরি অবস্থা হিসেবে বিবেচিত হয়, যার কারণে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারে নগরবাসী। এ অবস্থায় শিশু, প্রবীণ এবং অসুস্থ রোগীদের বাড়ির ভেতরে এবং অন্যদের বাড়ির বাইরের কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখার পরামর্শ দেয়া হয়ে থাকে।

একিউআই সূচকে ৫০ এর নিচে স্কোর থাকার অর্থ হলো বাতাসের মান ভালো। সূচকে ৫১ থেকে ১০০ স্কোরের মধ্যে থাকলে বাতাসের মান গ্রহণযোগ্য বলে ধরে নেয়া হয়। একিউআই স্কোর ৩০১ থেকে ৫০০ বা তারও বেশি হলে বাতাসের মান ঝুঁকিপূর্ণ মনে করা হয়। এ অবস্থায় নগরবাসী স্বাস্থ্য সতর্কতাসহ জরুরি অবস্থার মুখোমুখি হতে পারে।

প্রতিদিনের বাতাসের মান নিয়ে তৈরি করা একিউআই সূচক একটি নির্দিষ্ট শহরের বাতাস কতটুকু নির্মল বা দূষিত সে সম্পর্কে মানুষকে তথ্য দেয় এবং তাদের জন্য কোন ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি হতে পারে তা জানায়।

জনবহুল ঢাকা দীর্ঘদিন ধরেই দূষিত বাতাস নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে। মূলত নির্মাণ কাজের নিয়ন্ত্রণহীন ধুলা, যানবাহনের ধোঁয়া, ইটভাটা প্রভৃতি কারণে রাজধানীতে দূষণের মাত্রা চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে।

বিশ্বব্যাংক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের এক প্রতিবেদনে ঢাকার বায়ুদূষণের প্রধান কারণ হিসেবে এ শহরের চারপাশে অবস্থিত ইটভাটাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, বায়ুদূষণকে একটি গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় সংকট হিসেবে দেখা উচিত।