ঢাকা, বৃহস্পতিবার ০২, ডিসেম্বর ২০২১ ৪:১৭:৫৯ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
ভারত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত স্থগিত ব্রাজিলে করোনার নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ শনাক্ত ২৩ দেশে ছড়িয়েছে ওমিক্রন,৭০ দেশের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা কাল শুরু এক দিনে করোনায় শনাক্ত ২৮২, মৃত্যু ২

উত্তরবঙ্গের ঐতিহ্যবাহী খাবার ‘কলাই রুটি’

লাইফস্টাইল ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০৬:৩০ এএম, ২৩ নভেম্বর ২০২১ মঙ্গলবার

ফাইল ছবি।

ফাইল ছবি।

কালাই রুটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বিখ্যাত ও ঐতিহ্যবাহী খাবার। এ জেলা ছাড়াও উত্তরবঙ্গের রাজশাহী ও নওগাঁয় এ রুটি বেশ জনপ্রিয়। এই অঞ্চলে মাছ-ভাত-ডালের মতই বহুল প্রচলিত একটি খাবার। এ সব শহরের প্রায় সকল জায়গায় চোখে পড়বে কালাই রুটির দোকান। হালে রাজধানী ঢাকাতেও কালাই রুটি জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

কলাই রুটি সংরক্ষণযোগ্য খাবার। এ রুটি মাসকলাই ও আতপ চালের আটা বা ময়দা, লবণ এবং পানি দিয়ে তৈরি করা হয়।

কালাই রুটি তৈরির নিয়ম: প্রথমে মাসকালাই ও আতপ চাল পাটাতে বা যাঁতাতে পিষে আটা বানানো হয়। মেশিনে তৈরি আটা দিয়েও কালাই রুটি বানানো গেলেও পাটায় পিষ্ট আটা দিয়ে কালাই রুটি বানালে স্বাদ বৃদ্ধি পায়। এর সাথে স্বাদমতো লবণ ও প্রয়োজনীয় পরিমাণ পানি মিশিয়ে খামির তৈরি করা হয়। খামির থেকে ছোট বল পরিমাণ আটা নিয়ে গোলাকার করা হয়। এরপর দুই হাতের তালুতে রেখে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে বড় রুটি বানানো হয়। সাধারণত গমের রুটির চেয়ে কালাই রুটি অধিক পুরু এবং বড়। এরপর রুটিটিকে মাটির তাওয়াতে সেঁকে গরম করা হয়। রুটির রঙ বাদামী হয়ে গেলে নামিয়ে নেওয়া হয়।

পরিবেশন: কালাই রুটির সাথে সাধারণত বেগুন ভর্তা, শুকনো মরিচ ভর্তা, বট, পেঁয়াজ ভর্তা, মাংস ভুনা ইত্যাদি দিয়ে পরিবেশন করা হয়।এসবের সাথে রুটির টুকরোর ছিড়ে গরম গরম খাওয়া হয়।

মূল্য: কালাই রুটির দাম সাধারণত ২০ থেকে ২৫টাকার মধ্যে হয়। তবে কোন কোন স্থানে বিশেষ কালাই রুটি বানানো হয়, যার মূল্য ৫০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

সংশ্লিষ্টতা: সমাজের অত্যন্ত দরিদ্র শ্রেণীর লোকজন কালাই রুটির ব্যবসার সাথে জড়িত। অধিকাংশ রুটির দোকান মহিলারা পরিচালনা করেন। অধিকাংশ দোকানের পরিবেশ স্বাস্থ্যকর না। তবে বর্তমানে অভিজাত রেস্তোরাগুলোতেও কালাই রুটি বানানো হয়ে থাকে।

পুষ্টিগুণ: মাসকলাইয়ে থাকে প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, মিনারেল (জিঙ্ক, ফসফরাস, ক্যালসিয়াম) ও অল্প পরিমাণে ফ্যাট আর চালে কার্বোহাইড্রেট, সামান্য প্রোটিন ও ফ্যাট। তবে কলাইয়ের চেয়ে চালে ফ্যাটের পরিমাণ বেশি। চালের এবং মাষকলাইয়ের ময়দার সংমিশ্রণে তৈরি হয় কালাই রুটি। এই রুটিতে যে পরিমাণ মিনারেল থাকে তা শরীরের জন্য খুবই উপকারী। বিশেষ করে কার্বোহাইড্রেট শরীরের গঠন মজবুত ও অতিরিক্ত শক্তি জোগায়। মিনারেলগুলো শরীরের বিপাকক্রিয়া সম্পন্ন করে। এছাড়া কালাই রুটিতে প্রোটিনের পরিমাণ বেশি থাকায় তা শরীরের গঠন মজবুত করে। ডায়াবেটিস রোগীদের ভাতের চেয়ে রুটি খাওয়াই বেশি ভালো। সেক্ষেত্রে কলাই রুটি তাদের জন্য অধিক উপকারী।