ঢাকা, রবিবার ২৬, মে ২০২৪ ২১:২২:৫৩ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
৮ লাখের বেশি মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে এসেছেন যেসব জেলায় ১২ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা ঘূর্ণিঝড় রেমাল: দুই সমুদ্রবন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দুপুরে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০ নির্দেশনা ঘূর্ণিঝড় রেমাল: ১০ ফুট জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা ১৮ জেলায় আঘাত হানতে পারে রেমাল: দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী

ডেঙ্গুতে মৃত্যু ৬০০ ছুঁই ছুঁই

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১০:৩৭ পিএম, ১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ শুক্রবার

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

দেশে গত একদিনে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরে আরো চারজন মারা গেছে। এই সময়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে আরো এক হাজার ৫৩৪ জন। এ নিয়ে চলতি বছর দেশে ডেঙ্গুতে ৫৯৭ জনের মৃত্যু হলো। হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা বেড়ে হলো এক লাখ ২৫ হাজার ৩৪২ জনে।

আজ শুক্রবার (১ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতির এমন তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গত একদিনে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের ৫৮৯ ঢাকার। ঢাকার বাইরে ৯৪৫ জন। এতে বলা হয়, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ৮ হাজার ৩৪৮ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ঢাকা মহানগরীর সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে ৩ হাজার ৮১৮ জন এবং ঢাকার বাইরে অন্যান্য বিভাগে ভর্তি রয়েছে ৪ হাজার ৫৩০ জন রোগী।

এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারা দেশে ১ লাখ ২৫ হাজার ৩৪২ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা সিটিতে ৫৮ হাজার ৬১০ এবং ঢাকার বাইরে ৬৬ হাজার ৭৩২ জন। এদিকে এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারা দেশে ৫৯৭ জন মারা গেছেন।

এদের মধ্যে ঢাকা সিটিতে ৪৩৯ জন ও ঢাকার বাইরে ১৫৮ জন।

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১ লাখ ১৬ হাজার ৩৯৭ জন। এর মধ্যে ঢাকা সিটিতে ৫৪ হাজার ৩৫৩ এবং ঢাকার বাইরে দেশের বিভিন্ন স্থানে সুস্থ হয়েছেন ৬২ হাজার ৪৪ জন। গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১ হাজার ৫৬০ জন। এর মধ্যে ঢাকা সিটির ৫৮৭ জন এবং ঢাকার বাইরে বিভিন্ন স্থানে সুস্থ হয়েছেন ৯৭৩ জন।


হাসপাতালে ভর্তির ৭২ ঘণ্টায় ৯০ শতাংশ রোগীর মৃত্যু

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংক্রমণ রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম বলেছেন, চলতি বছরে ডেঙ্গুতে যত রোগী মৃত্যুবরণ করেছেন তার ৯০ শতাংশই হাসপাতালে আসার তিন দিনের মধ্যে মারা গেছেন। জ্বর হলে তো চারদিন-পাঁচদিন পর রোগীর অবস্থা খারাপ হওয়ার কথা। তাহলে তিন দিনের মাথায় মৃত্যুর মানে- তার এই রোগের শুরু আরো আগে। প্রথমে সে চিকিৎসকের কাছে যায়নি। যখন এসেছে, তার অবস্থা ইতোমধ্যেই খারাপ হয়ে গেছে।

সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, প্রত্যেক ব্যক্তিকে তার নিজের সুরক্ষার জন্য সচেতন থাকতে হবে। কোনো অবস্থাতেই জ্বরকে অবহেলা করা যাবে না। মশা যেন না কমড়ায়, বাসায় যেন এডিসের প্রজনন না হয়, সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

গত ১০ দিন ধরে রাজধানীতে এডিস মশার বর্ষাকালীন জরিপ করছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এই জরিপের অংশ হিসেবে গুলশান-বনানীর বিভিন্ন বাসাবাড়িতে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এসব নমুনা পরীক্ষা করে মিলছে এডিস মশার লার্ভা।

সবশেষ শুক্রবার রাজধানীর গুলশান-১ এর একটি বহুতল ভবনের গ্যারেজে এডিসের লার্ভাবিরোধী অভিযান চালায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। অভিযানে ভবনটির গ্যারেজে বোতল ও গাড়ির টায়ার পড়ে থাকতে  দেখা যায়। সেখানেও এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়।