ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২২, এপ্রিল ২০২১ ৩:০২:২৮ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
বাংলাদেশ জাতিসঙ্ঘের মাদক কমিশনের সদস্য নির্বাচিত লকডাউনে দরিদ্রদের জন্য সাড়ে ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রধানমন্ত্রীর করোনায় মারা গেলেন কবি শঙ্খ ঘোষ ‘‌লকডাউন ধনীবান্ধব, দরিদ্রবান্ধব নয়’ খালেদা জিয়ার শরীরে ব্যথা নেই, ২-৩ দিন পর ফের পরীক্ষা

হবু বরকে অপহরণকারী সেই ঋতু আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ০২:২৭ পিএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ শনিবার

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় আইনজীবী আবু হেনা মোস্তফা কামাল মিলন (৩৩) অপহরণের ঘটনায় তারই বাগদত্তা রাবেয়া সুলতানা ঋতুকে (২২) আটক করেছে পিবিআই যশোর।

গতকাল শুক্রবার খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর বাজার থেকে ঋতুকে আটক করা হয়। ঋতু সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার প্রতাবনগর গ্রামের এসএম হারুন অর রশিদের মেয়ে। তিনি ঢাকার স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির ছাত্রী।

হবু বরকে অপহরণের পর ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ চান স্বয়ং কনে। এ ঘটনায় অপহৃতকে উদ্ধারের পাশাপাশি অপহরণচক্রের তিন সদস্যকে আটক করে পুলিশ। আটক তিনজন হলেন- খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার ফরমায়েসখানা (দেয়াড়া) গ্রামের আলাউদ্দিন শিকদারের ছেলে শাহীন শিকদার (১৮), জামির সরদারের ছেলে আব্দুস সালাম (২৪) এবং সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুর বড়বাজার এলাকার মৃত আজমল হকের মেয়ে ঋতুর বান্ধবী কথিত মডেল সুরাইয়া নীল (২০)।

আইনজীবী মিলন অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে যশোরের অভয়নগর থানায় দায়ের করা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই যশোরের এসআই স্নেহাশীষ দাস জানিয়েছেন, অ্যাডভোকেট মিলন সাতক্ষীরার তালা উপজেলার বরুইহাটি গ্রামের সাংবাদিক এমএ হাকিমের ছেলে। মিলনের সঙ্গে ঋতুর বিয়ে ঠিক হয় পারিবারিকভাবে।

কিন্তু বিয়ের আগে ঋতুর কথামতো মিলন গত ৬ ফেব্রুয়ারি দেখা করার জন্য পাইওনিয়র বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে যায়। সেখান থেকে তারা খুলনার জাহানাবাদ গিলাতলা পার্কে যায়। সেখানে তাদের সঙ্গে দেখা হয় ঋতুর বান্ধবী সুরাইয়া নীলের। নীল কৌশলে চা খাওয়ানোর নাম করে তার অভয়নগরের একতারপুর গ্রামের ভাড়া বাড়িতে নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে গিয়ে নীল ও তার স্বামী হাবিব মিলন রাজ এবং সহযোগী আব্দুল সালাম তাকে বেধে ফেলে মারপিট করে। পরে মিলনের ফোন ব্যবহার করে তার ভাই ও বাবার কাছে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। পরে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে দুই লাখ টাকা দাবি করে। এর মধ্যে ১০ হাজার টাকা হাতিয়েও নেয় মিলনের কাছ থেকে। এই ঘটনায় মিলনের বাবা তালা থানায় একটি জিডি করেন।

ওই জিডির সূত্র ধরে যশোর পিবিআই তদন্ত করে। পরে পিবিআই জানতে পারে ঋতু বাগদত্তা হলেও সে মূলত অপহরণকারী। মিলনকে ডেকে নিয়ে সাক্ষাৎ করা, বান্ধবী নীলের সঙ্গে পরিচয় সব কিছুই সাজানো।

গত ৯ ফেব্রুয়ারি মিলনকে একতারপুর গ্রামের নীল-রাজের ভাড়াবাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়। এর আগে সহযোগী শাহীন শিকদারকে আটক করে পিবিআই। পরে ওই বাড়ি থেকে আব্দুস সালম ও নীলকে আটক করা হয়। কিন্তু ঋতু ও রাজ পলাতক থাকে। ঋতুকে চুকনগর থেকে আটক করে পিবিআই। আর রাজ এখনও পলাতক রয়েছে।

-জেডসি