ঢাকা, মঙ্গলবার ২০, এপ্রিল ২০২১ ১৬:৪৭:০০ পিএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
করোনা টিকা উৎপাদনে সহায়তার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর লকডাউনের সময় বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি কয়েক মাসেই নিয়ন্ত্রণে আসবে করোনা: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ভারতে করোনায় আরও ১,৭৫৭ মৃত্যু, আক্রান্ত আড়াই লাখ খালেদা জিয়ার জ্বর নেই, শ্বাসপ্রশ্বাস স্বাভাবিক

জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে কঠোর হচ্ছে র‍্যাব

নিজস্ব প্রতিবেদক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১১:০২ পিএম, ৫ এপ্রিল ২০২১ সোমবার

জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে কঠোর হচ্ছে র‍্যাব

জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে কঠোর হচ্ছে র‍্যাব

সারাদেশে করোনার বিদ্যমান পরিস্থিতিতে মানুষের মধ্যে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা ছাড়াও মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটারিয়ন (র‍্যাব)।
এ লক্ষে করোনা মহামারি মোকাবিলায় সকলের মধ্যে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে রাজধানীর শাহবাগ, যাত্রাবাড়িসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।  
এদিকে র‍্যাবের মূথপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন আজ সোমবার জানিয়েছেন, রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে মানুষের মধ্যে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে কঠোর হচেছ এলিট ফোর্স র‍্যাব। যাদের মাস্ক নেই তাদেরকে মাস্ক প্রদান করা হচেছ। এছাড়া কোন কোন ক্ষেত্রে জরিমানাও করছে র‍্যাব।
আজ সোমবার  রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন  র‍্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু।
এসময় মাস্ক ছাড়া বাসার বাহিরে অহেতুক ভাবে যারা  ঘোরাফেরা করেছেন, তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এছাড়া  র‍্যাবের পক্ষ থেকে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে প্রায় আড়াই হাজার মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়।
অভিযানে অংশ নেয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু  আজ সোমবার জানান, সরকারের নির্দেশনাগুলো কার্যকর করার লক্ষে যারা মাস্ক পরিধান করবেন না তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতে আইনগত ব্যবস্থা নিচেছন। করোনাকালীন সময়ে সকলের মধ্যে  মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে এবং জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে একযুগে কাজ করা হচ্ছে।
মূলত জরিমানা করা  র‍্যাবের উদ্দেশ্য নয় উল্লেখ করে  ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু বলেন,  র‍্যাবের উদ্দেশ্য করোনা প্রতিরোধে  দেশের মানুষের মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টি করা।  এটা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে।
তিনি আরও বলেন, রিকশাচালক, ভ্যানচালক, মোটরসাইকেল চালক, দিনমজুর, মোটরসাইকেল আরোহীসহ যারা মাস্ক পরছেন না তাদের সচেতন করে মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। এসময় পচিশ জনের ও বেশি লোককে  সামান্য জরিমানাও করা হয়েছে। এছাড়া লকডাউনে যারা বিনা কারণে বাইরে ঘোরাঘুরি করছেন, তাদের সচেতন করা হচ্ছে যেন তারা বাইরে না আসেন।  
এদিকে, র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন আজ সোমবার জানান,  করোনা সংক্রমণ রোধে সচেতনতার জন্য র‍্যাবের পক্ষ থেকে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে  মাস্ক, লিফলেট এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে। পাশাপাশি র‍্যাবের টহল দল সাধারণ মানুষের মধ্যে মাস্ক বিতরণ ও জনসচেতনতা সৃষ্টিতে লিফলেট বিতরণ করছেন।
সরকার যে নির্দেশনা দেবে, সেই সকল নির্দেশনা মেনে আমরা কাজ করবো জানিয়ে  র‍্যাবের মূথপাত্র বলেন, লকডাউনের মধ্যেও মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য আমরা জনগণকে সচেতন করে তুলতে কাজ করছি। যাদের মুস্ক নেই তাদের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করা হচেছ।এছাড়া অনেক ক্ষেত্রে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানাও করা হচেছ।
এছাড়াও রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে তাদের যেসব পেট্রোল ও টহল টিম থাকবে তারাই লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনগণকে উদ্বুদ্ধ করবে। আমরা সরকারী নির্দেশ মতে কাজ করে যাচিছ। এটা পর্যায়ক্রমে আগামী দিনে অব্যাহত থাকবে বলে জানান র‍্যাবের এ উর্ধ্বতন কর্মকর্তা।