ঢাকা, রবিবার ০১, আগস্ট ২০২১ ১০:৩৪:২৫ এএম

First woman affairs online newspaper of Bangladesh : Since 2012

Equality for all
Amin Jewellers Ltd. Gold & Diamond
শিরোনাম
শোকাবহ আগস্টের প্রথম দিন আজ লকডাউনে আটকেপড়া পোশাক শ্রমিকরা চাকরি হারাবে না দেশে একদিনে করোনায় ২১৮ মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৯৩৬৯ ডেল্টার নতুন ধরনে শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কম শিল্পকারখানা খোলার খবরে ঢাকামুখী মানুষের ঢল হেলেনার বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় আরেক মামলা

হাজিদের নিরাপত্তায় প্রথমবারের মত নারী সেনা মোতায়েন সৌদিতে 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | উইমেননিউজ২৪

প্রকাশিত : ১১:৫৯ এএম, ২২ জুলাই ২০২১ বৃহস্পতিবার

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো হাজিদের নিরাপত্তায় মক্কায় নারী সেনা মোতায়েন করেছে সৌদি আরব সরকার। গত এপ্রিল থেকে তারা কাজ করছেন। যুবরাজ সালমানের ‘ভিশন ২০৩০’ শীর্ষক সংস্কার পরিকল্পনার আওতায় এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। খবর রয়টার্স-এর।

সৌদি আরবকে রক্ষণশীল সমাজ থেকে ধীরে ধীরে বের করে আনার উদ্যোগ নিয়েছেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। তিনি দেশে সামাজিক ও অর্থনৈতিক সংস্কারের কাজ শুরু করেছেন। রক্ষণশীল মুসলিম রাষ্ট্রে বৈচিত্র্য এনে এর আধুনিকায়ন করা এবং বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করাই এর উদ্দেশ্য।

রয়টার্স বলছে, এই নারী সেনাদের একজন মোনা। খাকি রঙের সামরিক পোশাক, লম্বা জ্যাকেট, ঢিলেঢালা ট্রাউজার, মাথায় কালো ক্যাপ আর কালো কাপড়ে মুখ ঢেকে এবারের হজের সময় হাজিদের নিরাপত্তার দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। বাবার অনুপ্রেরণাতেই মোনার সেনাবাহিনীতে যোগ দেওয়া। আর পবিত্র শহর মক্কায় হজের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেওয়া সৌদি আরবের প্রথম নারী সেনা দলেরও একজন তিনি।

মসজিদের সামনে দাঁড়িয়ে মোনা বলেন, 'আমি প্রয়াত বাবার যাত্রা সম্পন্ন করতে তার পদাঙ্ক অনুসরণ করছি। হাজিদের সেবায় কাজ করা খুবই মহৎ এবং সম্মানজনক।' 

যুবরাজ সালমান তার ‘ভিশন ২০৩০’ শীর্ষক এই সংস্কার পরিকল্পনার আওতায় সৌদি নারীদের জীবন বদলে দেওয়া কিছু উদ্যোগ নিয়েছেন। অভিভাবকের অনুমতি ছাড়া নারীদের ভ্রমণ করা, গাড়ি চালানো, স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখার মতো আরও বেশকিছু ক্ষেত্রে সৌদি আরবে নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন যুবরাজ।